হোম » সারাদেশ » মির্জাগঞ্জে আ.লীগ নেতার কম্বল বিতরণ

মির্জাগঞ্জে আ.লীগ নেতার কম্বল বিতরণ

এস কে মিন্টু: কনকনে শীত আর কুয়াশায় নাকাল জনজীবন। শৈত্যপ্রবাহে বেশি কাবু করেছে দিনমজুর ও নিম্ন আয়ের মানুষদের।শীতকাল এলেই শীত নিবারণের জন্য ধনী বা মধ্যবিত্তদের মধ্যে বাহারি ডিজাইন ও নানা রঙের শীতের পোশাক কেনার ধুম পড়ে যায়। আর যাদের সামান্য একটি শীতের পোশাক কেনার সামর্থ্য নেই, তাদের শীতের সাথে আপোষ করেই বেঁচে থাকতে হয়।
শীতার্ত মানুষদের উষ্ণতা দিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে,পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি,বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এ্যাডভোকেট মো.সুলতান আহমদ মৃধা নিজস্ব অর্থায়নে অসহায় ও দুস্থ শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র হিসেবে কম্বল বিতরণ করেন।
আজ শনিবার ( ৭ ডিসেম্বর)  সকাল ১০ টায় পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলার সুবিদখালী সরকারি ডিগ্রি কলেজ অডিটোরিয়াম মিলনায়তনে কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ৫ শতাধিক শীতার্তদের মাঝে এই কম্বল বিতরণ করেন তিনি।
এছাড়াও উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নে শীতার্তদের মাঝে কম্বল পৌঁছে দিতে স্ব-স্ব ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের হাতে ৫০ টি করে কম্বল তুলে দেন তিনি।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গাজী আতাহার উদ্দিন আহম্মেদের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন জুয়েল বেপারী,সিনিয়র সহ-সভাপতি ইসমাইল হোসেন মৃধা, সহ-সভাপতি এ্যাডভোকেট মো.ইউসুফ হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুবল চন্দ্র দেবনাথ প্রমুখ।
এসময়ে আরও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগ,অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। সুলতান আহমদ বলেন, দেশের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদান বিশ্ব নেতৃত্বের কাছে রোল মডেল।
শেখ হাসিনা সরকার,বারবার দরকার। আগামী নির্বাচনে আপনারা আওয়ামী লীগের নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে শেখ হাসিনাকে পুনরায় প্রধানমন্ত্রী করে দেশের উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখবেন।
তিনি আরও বলেন,প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে নিজস্ব অর্থায়নে,আপনাদের প্রতি বুকভরা ভালোবাসা,শ্রদ্ধাবোধ,সম্মান ও সহমর্মিতা নিয়ে আমি এখানে এসেছি কম্বল বিতরণ করতে। আপনাদের পাশে দাঁড়িরাতে। আপনাদেরকে শীতবস্ত্র দিতে পেরে আমি অত্যন্ত আনন্দিত।
আপনারা শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করবেন। শীতবস্ত্র পেয়ে শীতার্তরা জানান- বর্তমানে এলাকায় প্রচণ্ড শীত পড়েছে। যা সহ্য করার মতো না। কুয়াশা ও কনকনে ঠান্ডার জন্য কোন কাজকর্ম করতে পারছি না।
ভালো কোন শীতবস্ত্র না থাকায় শীতে খুবই কষ্ট হচ্ছে আমাদের। এখন আমরা এই শীতবস্ত্র পেয়ে খুব খুশি হয়েছি। যারা এই শীতবস্ত্র দিছে তাদের জন্য দোয়া রইলো।
শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!