হোম » প্রধান সংবাদ » নওগাঁয় বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন ও বানভাসীদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছেন জেলা প্রশাসক

নওগাঁয় বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন ও বানভাসীদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছেন জেলা প্রশাসক

জাহিদুল হক মিন্টু, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি: নওগাঁর মান্দা উপজেলার বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেছেন জেলা প্রশাসক মো. হারুন অর রশিদ। এসময় জেলা প্রশাসক বন্যা কবলিত এলাকা ঘুরে ঘুরে বানভাসী মানুষের
মাঝে ত্রাণ সামগ্রীও বিতরণ করেন। বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নে বিভিন্ন গ্রামে পায়ে হেঁটে ও
নৌকায় চড়ে বানভাসী মানুষের সাথে কথা বলেন এবং তাদের বিভিন্ন সমস্যার তাৎক্ষণিক সমাধানের ব্যবস্থা করেন পরে তিনি বানভাসী মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী হিসেবে ১০ কেজি করে চাল, চিড়া, স্যালাইনের প্যাকেট বিতরণ করেন।

এছাড়াও বানভাসী মানুষের বিশুদ্ধ পানির জন্য টিউবওয়েল, ভ্রাম্যমান ল্যাট্টিন ও স্ট্রীট লাইটের ব্যবস্থা করে দেন। এসময় মান্দা উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবদুল হালিম, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রেজাউল করিমসহ প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তা। এ সময় জেলা প্রশাসক হারুনুর রশীদ জানান বন্যার কারণে অনেক বাড়িঘর তলিয়ে গেছে। আমরা চেয়েছিলাম যাদের বাড়ি ঘর তলিয়ে গেছে তারা আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে খোলা আছে সেখানে গিয়ে তারা নিরাপদে অবস্থান করবেন।

কিন্তু তাদের বাড়ির নিকটে হওয়ার কারণে উঁচু বাদে থাকতে চাচ্ছেন এই কারণে প্রশাসনের পক্ষ থেকে দ্রুত গতিতে তাদের মাঝে ত্রাণ হিসেবে চাউল, চিড়া, স্যালাইনসহ শুকনো খাবার, বিশুদ্ধ পানির জন্য টিউবওয়েল স্থাপন, ভ্রাম্যমান ল্যাট্টিন ও আলোর জন্য স্ট্রীট লাইট স্থাপন করে দেয়া হচ্ছে যাতে বানভাসি মানুষের কোন অসুবিধা না হয়। তাছাড়াও ইতিমধ্যেই নদ-নদীর পানি কমতে শুরু করেছেন। বানভাসি মানুষেরা দুই- একদিনের মধ্যে তাদের নিজ বাড়িতে ফিরে যেতে পারবেন। এছাড়াও বন্যার কারণে যে সকল মানুষের বাড়ি ঘর তলিয়ে গেছে তাদের জন্য ত্রান বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। গত দুই দিনে জেলার মান্দা, রাণীনগর এবং আত্রাই উপজেলার বেড়িবাঁধ ভেঙে প্রায় অর্ধ শতাধিক গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে করে এসব গ্রামের প্রায় ৫০ হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে।

শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!