হোম » প্রধান সংবাদ » সিদ্ধিরগঞ্জে ডিশ ও ইন্টারনেট ব্যবসাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষ : আহত ১০

সিদ্ধিরগঞ্জে ডিশ ও ইন্টারনেট ব্যবসাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষ : আহত ১০

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি:

সিদ্ধিরগঞ্জে ডিশ ও ইন্টারনেট ব্যবসাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর ১টায় সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী কদমতলী প্রধান মসজিদের সামনে ৭নং ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর এবং ৬নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলরের লোকজনের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় পুরো এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এবং ঘটনাস্থল থেকে তুষার, ইসহাক ও আকাশ নামে ৩ জনকে আটক করে পুলিশ। আটককৃতদের পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে হামলাকারীরা।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়- নাসিক ৭নং ওয়ার্ড এলাকার জাহাঙ্গীর খান, শাহাবুদ্দিন প্রধান, নুরুল ইসলাম প্রধান, মমতাজ ও নাসিক ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আলী হোসেন আলার ছেলে আলামিন ৩ বছর যাবৎ ডিস ও ইন্টারনেট ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিল। এই ব্যবসা দখলে নিতে সোমবার রাতে আমির হোসেন কুট্টি ও রাসেলের লোকজন ডিশ ও ইন্টারনেট লাইনের তার কেটে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে জাহাঙ্গীর খাঁন বাদী হয়ে ৯ জনের নামে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। পরে দুপুর ১টায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এসআই মোঃ মজিবুর রহমান অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করতে গেলে পুলিশের উপস্থিতিতেই আমির হোসেন কুট্টি ও রাসেলের নেতৃত্বে কয়েকশ লোকজন লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা করে। এতে নুরুল ইসলাম প্রধান, জাহাঙ্গীর খান, রনি, সুমন, হাসান ও ইসলামসহ উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়। আহতদের নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে। 

এ বিষয়ে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলী হোসেন আলা জানান, সংঘর্ষের আগে আমি দু’পক্ষের লোকজনকেই এলাকায় বিশৃঙ্খলা করতে নিষেধ করি। পরে দুপুরের দিকে অমীর হোসেন কুট্টি ও রাসেলের কয়েকশ লোকজন আমার এলাকার বৈধ ডিশ ও ইন্টারনেট ব্যবসায়ীদের উপর হামলা করে। এতে দুইজনের মাথা ফেটে রক্তক্ষরণ হয়। এছাড়া আরো ৭ জন গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে আছে। তিনি আরো জানান, হামলাকারীরা দলের নাম ভাঙিয়ে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন নেতাদের শেল্টারে চলাফেরা করে এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ কামরুল ফারুক জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় ৩ জনকে আটক করা হয়েছে। একপক্ষ অভিযোগ দায়ের করেছে। ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আইনশৃঙ্খলার অবনতির হয়, এমন কাজ করলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবেনা। 

শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!