রেীমারীতে প্রশাসনের উদ্যোগে হলহলিয়া ও জিনজিরাম নদী হতে অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ

রৌমারী (কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধিঃ কুড়িগ্রামের রৌমারীতে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ব্রক্ষপত্রের শাখা হলহলিয়া ও ভারতের
সীমান্তবর্তী জিনজিরাম নদী হতে অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ হয়েছে। রৌমারীতে ব্রক্ষপত্রের শাখা হলহলিয়া ও ভারতের সীমান্তবর্তী জিনজিরাম নদীতে শুষ্ক মৌসুমে অপরিকল্পিত ড্রেজিং মেশিনের সাহায্যে দীর্ঘ দিন ধরে বালু উত্তলন করে আসছিল কিছু অসাধু
ব্যবসায়ী। যার ফলে শুধু ছোট এই শাখা নদী গুলোতে গভীর গর্তই হচ্ছিল না পরবর্তীতে বর্ষা মৌসুমে নদীর গতিপথ পরিবর্তীত হয়ে বেশকিছু ঘড়বাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে বসতভিটা হারিয়ে পথে বসেছিল বেশকিছু পরিবার।

 

 

উপজেলা সদর থেকে এই নদী গুলোর বর্তমান দুরত্ব প্রায় যথাক্রমে ১০ ও ১২ কিলোমিটার। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, এরকম ভাবে হলহলিয়া ও জিনজিরাম নদীতে ড্রেজার বসিয়ে বালু উত্তলন অব্যাহত থাকলে আগামী ৩/৪ বছরের মধ্যে নদীর গতি পথ পরিবর্তীত হয়ে জনপদ বিলীন হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এমতাবস্থায় এলাকাটি বালুমহাল নয় বিধায় “অবৈধ ভাবে বালু উত্তলণ আইনত দন্ডনীয়” হওয়ায় উপজেলা প্রশাসন বিষয়টি আমলে নিয়ে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে মেসিন ও পাইপ ধ্বংস করা সহ বালু উত্তলন বন্ধ করে দেয়।

 

মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ গোলাম ফেরদৌস । এ ব্যাপারে রৌমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব আল ইমরান বলেন – যেতেুতু নদীতে ড্রেজার বসিয়ে বালু উত্তোলনের কোনো সুযোগ নেই তাই আমরা যখনি অভিযোগ পেয়েছি অভিযোগের ভিত্তিতে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে বালুু উত্তোলন বন্ধ করে দিয়েছি।