জামালপুরের বগাবাইদে মাদকসেবী হারুনের বিরুদ্ধে স্থানীয় এলাকাবাসীর মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল

রবিউল হাসান লায়ন,জামালপুর: জামালপুর পৌর শহরের অন্তর্গত ১১ নং ওয়ার্ডের অধিনস্থ বগাবাইদ এলাকার মাদকসেবী হারুন অর রশিদ হারুনের বিরোদ্ধে চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী কার্যকলাপ ও স্থানীয় এলাকাবাসীদের নানা কারণে অতিষ্ট করার অভিযোগে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকাবাসী।  বৃহস্পতিবার সকালে পৌর শহরের মির্জা আজম চত্বরে হারুনের কার্যকলাপে অতিষ্ট হয়ে তার দিষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করেন এলাকাবাসী।
 মানববন্ধনে হারুন অর রশিদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী কার্যকলাপ বন্ধে ও তার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানিয়ে বক্তব্য রাখেন ১১নং ওয়ার্ড কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ মুহাম্মদ রোকন, শহর আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য নবুর ইসলাম নবু, জয়নাল, গোস্ত ব্যবসায়ী কালা কুদ্দুস কসাই, ব্যবসায়ী মজিবর, মুদির দোকানী কল্পনা বেগম, রহিমা বেগমসহ এলাকার সুধীসমাজের নেতৃবৃন্দ।
 বিক্ষোভ মিছিলে অংশনেয় স্থানীয় এলাকার আওয়ামী লীগের কর্মী সমর্থক ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দসহ হাজারো নারী পুরুষ ও যুব সমাজের নেতৃবৃন্দ। বগাবাইদ এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা মৃত- এছরামুল এর ছেলে হারুন অর রশিদ হারুন অত্র ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদকের সহোদর ভাই। মানবন্ধনে বক্তারা তাদের বক্তব্যে বলেন, হারুন দীর্ঘদিন যাবৎ অটো ও ব্যটারি চালিত রিক্সা শ্রমিকদের কাছ থেকে জোরপূর্বক চাঁদা আদায় করে আসছে।
চাঁদা না দিলে শারীরিক ভাবে প্রহর করা, অকথ্যভাষায় গালিগালাজ, মুদির দোকান মহিলা ব্যবসায়ী ও অন্যান্য ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে টাকা না দিয়ে জোরপূর্বক গরুর মাংস, চাউল, ডাউলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি নিয়ে যাওয়া। স্থানীয় এলাকা থেকে সাধারণ মানুষকে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে, আওয়ামী লীগের কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া এবং ক্ষমতাসিন দলের দলীয় প্রভাব খাঁটিয়ে চাঁদা আদায়সহ মাদক সেবন করে মাতাল অবস্থায় মানুষকে প্রহর, হেয়পতিপন্ন করে মানুষকে অতিষ্ট করে তুলেছে।
হারুন অর রশিদ হারুনের সকল অনৈতিক কার্যকলাপ, মাদকসেবন, চাঁদা বাঁজি বন্ধে ও তার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেয় হাজারো নারী পুরুষ ও যুব সমাজ। হারুনের সকল সন্ত্রাসী কার্যকলাপ বন্ধে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করে তার যথাযথ শাস্তি নিশ্চিত করার আবেদন জানো হয় বিক্ষোভ সমাবেশে। আগামী দিনে তার বিরুদ্ধে প্রশাসকর্তৃক কোন শাস্তির ব্যবস্থা না নেয়া হলে স্থানীয় এলাকাবাসী কঠিন আন্দোলন গড়ে তুলার হুসিয়ারী উচ্চরণ করেন। এছাড়াও স্থানীয় এলাকার শতশত মানুষের স্বাক্ষরিত জামালপুর জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, র‌্যাব, সদর থানা, প্রেসক্লাব বরাবর হারুনের অনৈতিক কার্যকলাপের কথা তুলে ধরে আবেদন দেয়া হয়েছে বলে জানায় স্থানীয়রা।