JavaScript must be enabled in order for you to see "WP Copy Data Protect" effect. However, it seems JavaScript is either disabled or not supported by your browser. To see full result of "WP Copy Data Protector", enable JavaScript by changing your browser options, then try again.
সংবাদ শিরোনাম:

জিএসপি সুবিধা বাতিল: ১৯০০ ভারতীয় পণ্যের ওপর শুল্ক বসালেন যুক্তরাষ্ট্র

আওয়াজ অনলাইন : পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার জেরে ওয়াশিংটন পাশে দাঁড়ালেও ভারতের পণ্য রপ্তানিতে অগ্রাধিকারমূলক বাজার সুবিধা (জিএসপি) প্রত্যাহার করে নিতে চান যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

এতদিন জিএসপি সুবিধার আওতায় ৫৬০ কোটি টাকা মার্কিন ডলারের প্রায় ১ হাজার ৯০০টি ভারতীয় পণ্য বিনা শুল্কে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে প্রবেশ করতো। ফলে, এসব ভারতীয় পণ্যগুলো আমেরিকায় সুলভ ও সহজলভ্য ছিল।

জনপ্রিয়তার সঙ্গে ভালো বাজারও ছিল। কিন্তু ট্রাম্পের নতুন সিদ্ধান্তের ফলে, যুক্তরাষ্ট্রে এবার এসব ভারতীয় পণ্যের উপর শুল্ক বসানো হবে।

নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে মার্কিন কংগ্রেসকে একটি চিঠিতে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প লিখেছেন, ‘‘ভারত এতদিন জেনারালাইসজড সিস্টেম অফ প্রেফারেন্স (জিএসপি)-এর আওতায় ছিল। এবার সেই বাণিজ্যিক সুবিধা প্রত্যাহার করে নেওয়া হচ্ছে।’’

ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়ান এক্সপোর্ট অর্গানাইজেশনের ডিরেক্টর জেনারেল অজয় সহায় বলেছেন, ‘‘আমেরিকার এই জিএসপি প্রোগ্রাম থেকে এখনও পর্যন্ত বিশ্বে সবচেয়ে বেশি উপকৃত দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে ভারত।

সেই সুবিধা প্রত্যাহার করে নেওয়া অবশ্যই দিল্লির কাছে একটি বড় ধাক্কা। এর ফলে, ভারতের কৃষি, সামুদ্রিক সম্পদ নির্ভর পণ্যাদি ও হস্তশিল্পজাত পণ্যগুলির দাম খুব বেড়ে যাবে আমেরিকায়। তাদের বাজার ধরে রাখতে অসুবিধা হবে।’’

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ট্রাম্প মার্কিন প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর ভারতের বিরুদ্ধে এত বড় পদক্ষেপ এই প্রথম।

যদিও ট্রাম্পের এই পদক্ষেপের ফলে ভারতের অসুবিধায় পড়ার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় বাণিজ্য সচিব অনুপ ভাদবন। তিনি বলেছেন, ‘‘এর ফলে মার্কিন মুলুকে ভারতীয় পণ্য রফতানির ক্ষেত্রে খুব একটা কিছু প্রভাব পড়বে বলে আমাদের মনে হয় না। তবে আমরা (ভারত) কোনও পাল্টা ব্যবস্থা নেওয়ার পথে হাঁটব না। ভারতে ঢোকা মার্কিন পণ্যাদির উপর বাড়তি শুল্ক চাপানাো হবে না।’’

যদিও মার্কিন প্রেসিডেন্টের এই সিদ্ধান্ত আজ থেকেই কার্যকর হচ্ছে, এমন নয়। তিনি মার্কিন কংগ্রেসকে চিঠি লিখে তাঁর সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন। কংগ্রেসে তা পাশ হতে আরও দু’মাস সময় লাগবে। ফলে, ভারত কিছুটা সময় পাবে। মার্কিন ট্রেড রিপ্রেজেন্টেটিভস অফিসের তরফে এমনটাই জানানো হয়েছে।
সূত্র: আনন্দবাজার। /এইচ.

সংবাদ পড়ুন, লাইক দিন এবং শেয়ার করুন

Comments

comments

About আওয়াজ অনলাইন

x

Check Also

বগুড়ার শেরপুরে বিশ্ব যক্ষা দিবস পালিত

এম. এ. রাশেদ বগুড়া প্রতিনিধিঃ এখনই সময় অঙ্গিকার করার, যক্ষা মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার” এই প্রত্যায় নিয়ে ...

error: Content is protected !!