JavaScript must be enabled in order for you to see "WP Copy Data Protect" effect. However, it seems JavaScript is either disabled or not supported by your browser. To see full result of "WP Copy Data Protector", enable JavaScript by changing your browser options, then try again.
সংবাদ শিরোনাম:

মামলা না নেয়ায় কুষ্টিয়ার খোকসায় শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ সুসাইড নোট লিখে ধর্ষিতা সহপাঠির আত্মহনন

কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধিঃ কুষ্টিয়ার খোকসা ডিগ্রী কলেজের প্রথম বর্ষের মেধাবী ছাত্রী সুমাইয়া তরনীর আত্মহননে দায়ী ধর্ষক শাহীনের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহণ, গ্রেফতারের দাবিতে সড়ক অবরোধ, বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছে শিক্ষার্থীরা। গতকাল শনিবার সকালে খোকসা ডিগ্রী কলেজের শিক্ষার্থীরা কলেজ ক্যাম্পাস থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে বাসস্ট্যান্ডে এসে মানববন্ধন করে। এ সময় শিক্ষার্থীরা কুষ্টিয়া-রাজবাড়ি সড়কে অবস্থান নিলে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বিক্ষোভকারীরা ধর্ষক শাহীনের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহন করে তাকে গ্রেফতারের দাবিতে শ্লোগান দিতে থাকে। পরে পুলিশ এসে আন্দোলনকারীদের রাস্তা থেকে সরিয়ে দেয়। ছাত্র-ছাত্রীরা এখান থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে উপজেলা পরিষদ ক্যাম্পাসে  গেটে অবস্থান নেয়। বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা দুপুর দেড়টা পর্যন্ত সেখানে অবস্থান করে। শিক্ষার্থীরা আল্টিমেটাম দিয়েছে ২৪ ঘন্টার মধ্যে মামলা গ্রহন করে শাহীনকে গ্রেফতার না করা হলে রবিবার সকালে তারা রাস্তায় নেমে কঠোর কর্মসূচি পালন করবে।
এদিকে নিহতের পরিবারের অভিযোগ, পুলিশ মামলা নিচ্ছে না। বৃহস্পতিবার বিকালে ছাত্রীর খাতায় লিখে যাওয়া সুইসাইড নোট পেয়ে তারা মামলার জন্য একাধিকবার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে দেখা করেছেন। পুলিশ মামলা না নিয়ে নানা রকম ফন্দি ফিকির করছে। শুক্রবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত ওসি বজলুর রহমান রহস্যজনক কারনে ছাত্রীর কুলখানি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। পুলিশের এই কর্মকর্তা শাহীনের বিরুদ্ধে ধর্ষন মামলা না করে তাকে অন্য মামলায় জড়িয়ে সাজা দেওয়া হবে বলে পরিবারটিকে আশ্বস্ত করে। পবিবারের লোকেরা আরো দাবি করছে, ছাত্রীর লিখে রেখে যাওয়া সুইসাইড নোটটি পুলিশ নিয়ে কিন্তু সেটি এখন আর ফেরত দিচ্ছে না। ফলে আদালতে মামলা দায়েরের বিষয়টিও কঠিন হয়ে পরছে।  নিহত ছাত্রীর চাচা ইস্তেকবাল চয়ন জানান, সুইসাউড নোট পাওয়ার পর তারা সেটি থানায় জমা দিয়েছে। এখন আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য তারা মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে। কিন্তু পুলিশ মামলা না নিয়ে নানান ছল চাতুরতা করছে। বৃহস্পতিবার রাতে নিহত ছাত্রীর বাবা খোকসা পৌরসভার কর্মকারী আজমল হোসেন ও মা রেশমী পারভিন বন্যা থানায় মামলা করতে যায় কিন্তু ওসি মামলা না নিয়ে তাদের বাড়ি ফিরিয়ে দেয়। এ ব্যাপারে থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বজলুর রহমানের সাথে কথা বলার জন্য তার সরকারী মোবাইলে ফোনে কল করা হয় কিন্তু তিনি ফোন রিসিভ করেননি। কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত জানান, এ ধরণের কোন ঘটনা ঘটেছে কিনা বিষয়টি তার জানা নেই। বিষয়টি জেনে তিনি এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান। বিজ্ঞান শাখার মেধাবী ছাত্রী সুমাইয়া তরনী অসুস্থ্য আপন খালাকে দেখতে মামার শ্বশুর (সম্পর্কিয় নানা) শাহীনের মোটর সাইকেলে কুষ্টিয়া শহরে যায়। রাস্তায় পদ্মা নদীর চরে নিয়ে তাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে শাহীন ধর্ষন করে। পরের দিন সন্ধ্যায় নিজের ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে তরনী। আত্মহননের ৫ দিনের মাথায় বৃহস্পতিবার বিকালে খাতার একটি খাতায় সুইসাইড নোটে আপন মামার শ্বশুর শাহীনের লালসার শিকার হয় বলে সে লিখে রেখে যায়।
সংবাদ পড়ুন, লাইক দিন এবং শেয়ার করুন

Comments

comments

About আওয়াজ অনলাইন

x

Check Also

শ্রীপুরে আগুন জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ শিক্ষার্থীদের

শ্রীপুর ,গাজীপুর প্রতিনিধি আব্দুর রউফ রুবেল : গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার মাওনা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে ...

error: Content is protected !!