JavaScript must be enabled in order for you to see "WP Copy Data Protect" effect. However, it seems JavaScript is either disabled or not supported by your browser. To see full result of "WP Copy Data Protector", enable JavaScript by changing your browser options, then try again.
সংবাদ শিরোনাম:
Home / অর্থনীতি / দিনাজপুরে আম ও লিচুর বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা
দিনাজপুরে আম ও লিচুর বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

দিনাজপুরে আম ও লিচুর বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

মোঃ মিজানুর রহমান চৌধুরী, দিনাজপুর প্রতিনিধি: দিনাজপুরে লিচু চাষের পাশা পাশি আম চাষে ধুম পড়েছে। ফসলি জমিতে লাগানো হয়েছে আম গাছ। গাছে গাছে বাতাসে দোল খাচ্ছে আমের মুকুল। আমের গাছ ও লিচুর গাছ গুলো মুকুলে ভরে গেছে। আম ও লিচুর গাছের মুকুলের পরিচর্যা করছে বাগান মালিক ও চাষিরা। উপচে পড়া মুকুলের সমারোহ দেখে এবার আম ও লিচুর বাম্পার ফলনের আশা করছে আম ও লিচু বাগান মালিক ও আম ব্যবসায়ীরা। তবে কৃষিবিদরা বলছেন,আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এবার আম ও লিচুর বাম্পার ফলন সম্ভাবনা রয়েছে।

আম ও লিচু গাছের প্রতিটি শাখার কচি ডগার বুক ভেদ করে এসেছে মুকুল। গাছে গাছে ফুটন্ত মুকুল থেকে বের হচ্ছে আম ও লিচুর গুটি। ভালো ফলন পাওয়ার আশায় গুটিদানা রক্ষার্থে বিরতি হীনভাবে গাছের পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছে বাগানি ও চাষিরা। গাছে থোকা থোকা মুকুল আগমনই বলে দিচ্ছে এবার ভালো ফলন হবে এ জেলায়। তাই দিনাজপুরের আম ও লিচু চাষিরা এখন ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন গাছের পরিচর্যায়। অনেকে ছত্রাক নাশক ও কীটনাশক স্প্রে করছে গাছে। লাভ জনক ফল হওয়ায় অনেকে ধান ও অন্যান্য ফসলের জমিতে আম ও লিচু গাছ লাগিয়েছে। বিরল উপজেলার পলাশবাড়ী এলাকার কৃষক মকছেদ জানালেন, তার আম ও লিচু বাগানে এবার প্রচুর মুকুল এসেছে। তা তিনি ৫০ বছরের দেখেননি এমন মুকুল। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে তিনি ভালো আম ও লিচু উৎপাদনের আশা করছিল।

রানীপুকুর এলাকার কৃষক আজাহার আলী তার ৮ বিঘা ফসলি জমির মধ্যে ৫ বিঘাতে আম ও লিচু গাছ লাগিয়েছেন। এবারই প্রথম তার গাছে মুকুল ধরেছে। বাগানের পতিত জমিতে তিনি ধান ও গম লাগিয়েছেন। এর আগে আলুও লাগিয়েছিলেন বলে জানালেন।

দিনাজপুরের ১৩টি উপজেলায় এ বছর ৫ হাজার ৭’শ ৯০ হেক্টর নির্ধারিত বাগানের জমিতে এবং এক হাজার ৯’শ হেক্টর বসতবাটির জমিতে আম ও লিচু চাষ হচ্ছে। জেলায় প্রায় ২০/২৫ প্রজাতির আম ও লিচু চাষ হচ্ছে। এর মধ্যে গোপালভোগ, সূর্যাপূরী, আম্রপালী, ল্যাংড়া, ফজলি, বউভূলানী, আসিনিয়া, ছাতাপড়া, চিনিফজলী, সুরমাই, মিশ্রীভোগ কালাপাহাড়ী, গুটি, মধুচুষি, খিরশাপাতি উল্লেখযোগ্য এছাড়াও অন্যদিকে লিচু বোম্বাই, চায়না-৩ উল্লেখযোগ্য। প্রতি মৌসুমে এ জেলার আম ও লিচু বিক্রি থেকে অর্জিত হয় গড়ে ১00 কোটিরও অধিক।

আম লিচুর মুকুলের মৌ ঘ্রাণে ভরে উঠেছে দিনাজপুরের গ্রামাঞ্চল। আর এসব আমের মুকুল থেকে আসতে শুরু করেছে থোকায় থোকায় আম ও লিচুর মুকুর। মুকুল রক্ষা ও রোগ বালাই থেকে মুক্ত রাখতে নিয়মিত চাষিদের পরামর্শ দিচ্ছে কৃষি বিভাগ। কৃষি স¤প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ তৌহিদুল ইকবাল জানান, এবার জেলা সদর, বিরল, কাহারোল, চিরিরবন্দর বোচাগঞ্জ, বীরগঞ্জ, পার্বতীপুর, বিরামপুর, ঘোড়াঘাট, হাকিমপুর ও নবাবগঞ্জ এলাকার বাগানগুলোতে উপচে পড়া মুকুলের সমারোহ। আম বিক্রি করে আর্থিক ভাবে লাভবান হবার স্বপ্ন দেখছেন আম বাগান মালিক ও ব্যবসায়ীরা।

আগাম বিক্রি হয়েছে কিছু আম বাগান। তবে অনেক বাগান মালিক ভালো দামের আশায় অপেক্ষা করছেন। আমের ভালো ফলন এবং রং টিক রাখার জন্য এখন থেকে গাছের গোঁড়ায় পানি দিচ্ছেন। মুকুল থেকে গুটি শুরু হওয়ায় ভিটামিন রিপকট স্প্রে করা হচ্ছে বলে বাগান মালিকরা জানিয়েছেন।

মুকুলের মৌ মৌ গন্ধে দিনাজপুর এখন মুখরিত হয়ে উঠেছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এবার এ অঞ্চলে আমেরও লিচুর বাম্পার ফলন হবে এমনটাই মন্তব্য করেছেন কৃষিবিদরা।

 

Comments

comments

About গণমানুষের আওয়াজ.কম

Scroll To Top
error: Content is protected !!