হোম » প্রধান সংবাদ » হাতীবান্ধায় ছাত্রী ধর্ষন চলছে রফাদফা

হাতীবান্ধায় ছাত্রী ধর্ষন চলছে রফাদফা

আসাদ হোসেন রিফাত,লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় এক ছাত্রী ধর্ষনের বিচার গ্রাম্য শালিসে চলছে রফাদফা, ৪ লাখ টাকায় দেন দরবার। ন্যায় বিচারের দাবী জানিয়েছে উক্ত ছাত্রীর পরিবার। উক্ত ছাত্রীর বাবা উপজেলার সিংগীমারী গ্রামের শস্য গুদাম এলাকার বাবুল বলেন, সদ্য এস এস সি পাস আমার মেয়ে (১৮) কে একই এলাকার খলিলুর রহমানের ছেলে মোঃ শিপন (২২) বিবাহের প্রলোভন দিয়ে গত শুক্রবার সন্ধার পর তার নিজ বাড়ীর ব্যবহারীর টয়লেটে ধর্ষন করে। তারপর শিপন তার নিজ শয়ন ঘরে উক্ত ছাত্রীকে নিয়ে গিয়ে ঘরের দরজা বন্ধ করে পুনরায় ধর্ষন করে। উক্ত ছাত্রীকে ধান ক্ষেত থেকে জ্ঞানহীন অবস্থায় উদ্ধার করে, স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি। প্রায় ১ সপ্তাহ গত হলেও এখনও অভিযোগ তদন্তধিন রয়েছে।
এমতাবস্তায় এলাকার কতিপয় মাদবর প্রভাব শালিদের অধিনে চলছে ৪ লাখ টাকা দেনদরবার। কিছুতেই মানতেছে না উক্ত ছাত্রী। সিংগীমারী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান এম জি মোস্তফা’র নেতৃীত্বে তার নিজ বাসায় গ্রাম্য মাদবরদের সাথে নিয়ে মঙ্গলবার রাতে এক দেনদরবারে বৈঠক বসে। সেখানে উক্ত ছাত্রীকে ধর্ষনের বিনিময় ৪ লাখ টাকা দিয়ে চায় শিপনের বাবা মেয়ের বাবা বাবুল কে।
এ বিষয়ে গতকাল বুধবার উক্ত ছাত্রী বলেন,আমি ন্যায় বিচার চাই, উক্ত ছাত্রীর বাবা বাবুল এ প্রতিনিধিকে  বলেন, আমার মেয়েকে ধর্ষনের বিনিময় ৪ লাখ টাকা আমাকে দিয়ে আপোষ করতে বলেছে বিচারে মাদবররা। কিন্তু আমি টাকা গ্রহন করি নাই, আমার মেয়ে ধর্ষনের ন্যায় বিচার চাই আমি।  সিংগীমারী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান এম জি মোস্তফা বলেন, আমার নিজ বাসায় কোন বৈঠক হয় নাই।
শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!