হোম » প্রধান সংবাদ » সেবা বাড়াতে ভৈরবের কালিকা প্রসাদে বিট পুলিশিং অফিস উদ্ধোধন

সেবা বাড়াতে ভৈরবের কালিকা প্রসাদে বিট পুলিশিং অফিস উদ্ধোধন

এম আর ওয়াসিম, ভৈরব(কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ কিশোরগঞ্জের ভৈরবে কালিকাপ্রসাদ ইউনিয়নে জনগণকে অধিক সেবা প্রদানের লক্ষ্যে বিট পুলিশিং এর অফিস উদ্বোধন করা হয়েছে। পুলিশের সেবা জনগণের দ্বারপ্রান্তে পৌছে দিতে এই বিট পুলিশিং সেবা কার্যক্রমের উদ্যোগ গ্রহন করেছে ভৈরব থানা পুলিশ। আজ বুধবার কালিকাপ্রসাদ ইউনিয়নের নতুন পরিষদ ভবনের দুতলায় বিট পুলিশিং সেবা কার্যক্রমের অফিস উদ্ধোধন করেন ভৈরব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ শাহিন ।

বিট পুলিশিং অফিস উদ্বোধনের সময় উপস্থিত ছিলেন ভৈরব থানার ওসি (তদন্ত) বাহালুল খান বাহার, কালিকাপ্রসাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সভাপতি ফারুক মিয়া, সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাসুদ রানা, সাংগঠনিক সম্পাদক হাসান মোঃ শামীম, ইউপি সদস্য ফুলমিয়া, সিফত আলী, আসলাম, লতিফ, আক্তার, দুদ মিয়া ও সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য ফিরুজা এবং খোরশেদা। এছাড়াও এসময় সকল শ্রেণীর বিভিন্ন পেশার সচেতন লোকজন উপস্থিত ছিলেন । বিট পুলিশিং দায়িত্ব বন্টনে জানা যায় এস আই শ্যামল দেবনাথ কালিকাপ্রসাদ ৯নং বিট পুলিশিং এর বিট অফিসার অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। এই সময় এ এস আই জসিম উদ্দিন ও সঙ্গীয় কনস্টেবলবৃন্দও উপস্থিত ছিলেন।

 

বিট পুলিশিং হলো কোন একটি নির্দিষ্ট এলাকায় কিছু নির্দিষ্ট সংখ্যক বা বিশেষ পুলিশ সদস্যদের স্থায়ী ভাবে দায়িত্ব পালন করা। থানা এলাকাগুলোকে কয়েকটি বিটে ভাগ করে প্রত্যেক বিটের দায়িত্ব পুলিশ কর্মকর্তার কাছে ন্যস্ত করা হবে। প্রতিটি ইউনিয়নকে একটি বিট হিসেবে ধরা হবে। ভৈরবে ৭ ইউনিয়নে ৭টি বিট ও পৌর এলাকায় তিন ওয়ার্ডে একটি করে বিট ভাগ করা হয়েছে। সাত ইউনিয়নে ৭টি ও পৌর এলাকায় ১২ ওয়ার্ডে ৪টি এবং সর্বমোট ১১ টি বিটে ভৈরবকে ভাগ করা হয়েছে।

 

এসময় ওসি মোঃ শাহিন বলেন, মাননীয় আইজিপি স্যারের নির্দেশনায় সারা বাংলাদেশে বিট পুলিশিং সেবা কার্যক্রমের উদ্ধোধন করা হয়েছে । সেবার জন্য মানুষকে আর থানায় যেতে হবেনা । অধিকাংশ সমস্যা বিট পুলিশিং অফিসারের মাধ্যমেই শেষ হবে। পুলিশের সেবা নিতে মানুষ যেন আর থানা না যেতে হয়, মানুষকে যেন আর হয়রানী না হতে হয় সেজন্যই বিট পুলিশিং সেবা চালু করা হচ্ছে। আমরা মানুষের দ্বারপ্রান্তে সেবা পৌছে দিবো । বিট পুলিশিং সেবা কার্যক্রম এর ফলে সমাজ থেকে মাদক ব্যবসা ও বাল্য বিবাহ, ইভটিজিং, চুরি, ছিনতাই, ডাকাতিসহ বিভিন্ন ধরনের অপরাধ মূলক কর্মকান্ড অনেকাংশে কমে যাবে বলে আমি আশা বাদী।

শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!