হোম » অপরাধ-দুর্নীতি » বগুড়া শিবগঞ্জে গ্রাম্য মাতব্বরের কারণে কুরবানীর মাংস খাওয়া হলো না ৭টি অসহায় পরিবারের

বগুড়া শিবগঞ্জে গ্রাম্য মাতব্বরের কারণে কুরবানীর মাংস খাওয়া হলো না ৭টি অসহায় পরিবারের

এম.এ রাশেদ (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ  বগুড়ার শিবগঞ্জে গ্রাম্য মাতব্বরের কারণে কুরবানীর মাংস খাওয়া হলো না ৭টি অসহায় পরিবারের, থানায় অভিযোগ।

জানা যায়, পবিত্র ঈদ উল আযহা উপলক্ষে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিবৃন্দ আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের লক্ষ্যে কোরবানী করে থাকেন। কুরবানী করা পশুর মাংস ৩ ভাগ করে একটি গরীব অসহায় পরিবারের মাঝে, এক ভাগ আত্মীয় স্বজনের মাঝে বন্টন করে ও এক ভাগ নিজে খাওয়ার জন্য রেখে দেয়। এর ধারবাহিকতায় গত ১ আগষ্ট পবিত্র ঈদ উল আযহা উপলক্ষে শিবগঞ্জ উপজেলার কিচক ইউনিয়নের কালকি গ্রামের ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের লক্ষ্যে কুরবানি করেন এবং যথাযথ নিয়মে অত্র এলাকার ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা মাংস ভাগ বাটোয়ারা করেন। অত্র এলাকার গরীব অসহায় পরিবারের জন্য একটি সমষ্টিগত ভাবে মাংস এক জায়গায় জড় করে তা সমান ভাগে গরীব অসহায় পরিবারের মাঝে বন্টন করে থাকেন। এবছর স্থানীয় মাতব্বর আলতাব আলী ও আহছান আলী কুরবানীর মাংস বন্টনে অনিয়ম করে। এ কারণে গ্রাম্য পুলিশ সিরাজুল ইসলাম সহ বেশ কয়েক জন প্রতিবাদ করলে ওই মাতব্বর ২জন যোগ সাজস করে তাদের ৭টি পরিবারের মাঝে কুরবানীর মাংস প্রদান করেন নাই। মাংসগুলো তারা তাদের বাড়িতে নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে গ্রাম্য মাতব্বর আহছান আলী ও আলতাব আলীর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। এব্যাপারে শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এসএম বদিউজ্জামান এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!