হোম » সারাদেশ » মাদ্রাসা ছাত্রীকে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদকারী যুবকে রক্তাক্ত জখম, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

মাদ্রাসা ছাত্রীকে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদকারী যুবকে রক্তাক্ত জখম, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

শাহজাহান সাজু, কিশোরগঞ্জ: কিশোরগঞ্জের হোসেনপুরে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদকারী যুবককে গুরুতর রক্তাক্ত আঘাত করার দায়ে প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
গ্রেফতারকৃত সানাউল্লাহ উত্তর গোবিন্দপুর গ্রামের মো. হাসেম উদ্দিনের ছেলে। মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার উত্তর গোবিন্দপুর মহিলা মাদ্রাসার এক ছাত্রী মাদ্রাসায় যাওয়া-আসার সময় পথরোধ করে ইভটিজিং করার প্রতিবাদ করায় স্থানীয় যুবক সুমন মিয়া ওরফে (ফুলমিয়া) কে বখাটেরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে গুরুতর জখম করে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতাল ও পরবর্তীতে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
এ ঘটনাটি ঘটে গত (৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০ ঘটিকায় বাজারে যাওয়ার সময় মানিক প্রফেসারের বাড়ির পাশে। এ ঘটনায় হোসেনপুর থানায় একটি মামলা দায়েরের দ্রুত সময়ের মধ্যে অফিসার ইনচার্জ নাহিদ হাসান সুমন,এসআই সুশান্ত চন্দ্র সরকার, এসআই শরিফুল, এএসআই তুহিন মিয়া এবং সঙ্গীয় ফোর্সসহ সোমবার দিবাগত রাত আড়াই ঘটিকার দিকে অভিযান চালিয়ে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার চর মারিয়া এলাকা থেকে এজাহার নামীয় প্রধান আসামি বখাটে সানাউল্লাহ কে গ্রেপ্তার করা হয়।
এ সময় তার ব্যবহৃত একটি গিয়ার চাকু উদ্ধার করা হয়। হোসেনপুর থানার মামলা নং-০৬(০২)২০২৪। মামলা রুজুর দ্রুত সময়ের মধ্যে প্রধান আসামি বখাটে সানাউল্লাহকে গ্রেফতার করায় বাদীসহ স্থানীয়রা থানা পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। এজাহার নামীয় অন্যান্য আসামিদের দ্রুত সময়ের মধ্যে গ্রেপ্তার করতে থানা পুলিশের সহযোগিতা কামনা করেন ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা।
হোসেনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাহিদ হাসান সুমন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, এ ঘটনায় বখাটেদের আঘাতে গুরুতর আহত সুমন মিয়ার মা মোছা. রুনা আক্তার বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়েরের দ্রুত সময়ের মধ্যেই প্রধান আসামি সানাউল্লাহ কে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামিকে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হচ্ছে। অন্যান্য আসামিদের দ্রুত গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।
error: Content is protected !!