হোম » প্রধান সংবাদ » দাগনভূঞায় তিন সন্তানের জননীকে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ! 

দাগনভূঞায় তিন সন্তানের জননীকে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ! 

মোঃআবদুল মুনাফ পিন্টু,দাগনভূঞা প্রতিনিধিঃ ফেনীর দাগনভূঞা রাতের আঁধারে ঘরে ডুকে গৃহবধূকে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়ে হত্যার চেষ্টা চালায় ফুল মিয়া (২৬) নামের এক বখাটে।  জানাযায়, উপজেলার ২নং রাজাপুর ইউনিয়নের ভবানিপুর গ্রামের আবদুল হাকিম মিয়ার নতুন বাড়ীতে দীর্ঘদিন দরে বসবাস করে আসছিল তিন সন্তানের জননী আকলিমা আক্তার নামের এক গৃহবধূ।
গত বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) একই ঘরের আকলিমা আক্তারের বড় ভাবি রিনা আক্তার সহ সেহরি খাওয়ার উদ্দেশ্যে ভোর রাত ৩টায় জাগ্রত হয়। এসময় প্রাকৃতিক ডাকে সাড়া দিতে আকলিমা আক্তার ঘরে অবস্থানরত বাথরুমে প্রবেশ করে। ঘরের দরজা খোলা পেয়ে ওত পেতে থাকা বখাটো ফুল মিয়া সুযোগ পেয়ে বাথরুমে প্রবেশ করে। এরপর তাকে জোরপূর্বক মুখ বেঁধে  ধর্ষণের চেষ্টা করে ফুল মিয়া।
দস্তাদোস্তির এক পর্যায় আকলিমা তার হাতে কামড় বসিয়ে চিৎকার করলে তার হাতে থাকা দড়ি দিয়ে তাকে ফাঁস লাগিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়। তৎক্ষনাৎ তার বড় ভাবি দৌড়ে এসে দেখে বখাটে ফুল মিয়া তখনও জোরাজোরি করতেছে। এরপর দুইজনই চিৎকার চেঁচামেচি করলে বখাটে তাকে গোপনঅঙ্গে লাথি মেরে পালিয়ে যায়।
এসময় লাঞ্চিত হওয়া আকলিমা আক্তার শরীরের বিভিন্ন জায়গায় কাটাছেঁড়ায় আহত হয়। পরে তাকে দাগনভূঞা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা করানোর জন্য পাঠানো হয়।ঘটনার পর থেকে বখাটে ফুল মিয়া পলাতক রয়েছে বলে জানাযায়। আজ বুধবার ৫ আগস্ট দাগনভূঞা থানায় আকলিমা আক্তার বাদী হয় এঘটনায় মামলা দায়ের করেন৷ দাগনভূঞা থানার অফিসার ইনচার্জ আসলাম শিকদার জানান, ঘটনার সত্যতার পরিপেক্ষিতে আসামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।
শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!