হোম » প্রধান সংবাদ » দামুড়হুদা উপজেলার বিভিন্ন  দোকানে ভোক্তা অধিকার এর ভ্রাম্যমাণ অভিযান পরিচালিত

দামুড়হুদা উপজেলার বিভিন্ন  দোকানে ভোক্তা অধিকার এর ভ্রাম্যমাণ অভিযান পরিচালিত

মো: তারিকুর রহমান চুয়াডাংগা প্রতিনিধি: ২৯শে জুলাই ২০২০ তারিখ জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের  মহাপরিচালকের সার্বিক নির্দেশনা এবং জেলা প্রশাসক মহোদয়, চুয়াডাঙ্গা এর তত্ত্বাবধানে চুয়াডাঙ্গা জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক  সজল আহম্মেদ এর নেতৃত্বে দামুড়হুদা উপজেলার ব্রীজরোড ও মুক্তারপুর বাজার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ অভিযান পরিচালনা করা হয়।
অভিযানে দামুড়হুদা বাজার ব্রীজরোডে অবস্থিত মেসার্স নাজিম স্টোরে মুল্যতালিকা প্রদর্শন না করা ও মেয়াদ মুল্য বিহীন পণ্য বিক্রয় করায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন-২০০৯ এর ৩৭ও ৩৮ ধারায় ২,০০০/- টাকা, মেসার্স ওয়াহেদ ট্রেডার্সকে লাইসেন্স এর শর্ত অমান্য করে মজুদাগারে দাহ্য পদার্থ পেট্রোলিয়াম না রেখে রাস্তার পাশে মজুদ করে সেবাগ্রহীতার জীবন ও নিরাপত্তা বিপন্নকারী কার্যের জন্য ও যথাযথভাবে মুল্যতালিকা প্রদর্শন না করায় ৩৮, ৫২ ধারায় ১০,০০০/- টাকা জরিমানা করা হয়।
 পরবর্তীতে মুক্তারপুরে গ্লুকোজ বাজারজাতকারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স সিপি ফুডস প্রোডাক্টসে অভিযানে দেখা যায় আমদানি করা গ্লুকোজ এর প্যাকেটের গায়ে মুদ্রিত মেয়াদ উত্তীর্ণ হবার তারিখ থেকে নতুন প্যাকেটে মেয়াদ বাড়িয়ে বাজারজাত করছেন (প্রমাণ ছবিতে)। সঠিকভাবে উৎপাদন ও মেয়াদ উত্তীর্ণ হবার তারিখ না দেয়ার প্রতিষ্ঠানটিকে ৩৭ ধারায় ২৫,০০০/- টাকা জরিমানা করা হয় এবং ভবিষ্যতে এধরণের কাজ না করার জন্য সাবধান করে দেয়া হয়। অভিযানে ০৩টি প্রতিষ্ঠানকে মোট ৩৭,০০০/- টাকা জরিমানা করা হয়।
পরবর্তীতে কয়েকজন চামড়া ব্যবসায়ীর সাথে কথা বলে ন্যায্য মুল্যে কুরবানির পশুর চামড়া ক্রয় ও সঠিকভাবে রক্ষণাবেক্ষণের পরামর্শ দেওয়া হয়।  এসময় তাদের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রেরিত লিফলেট প্রদান করা হয়।  নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশের একটি টিম।  জনস্বার্থে এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।
শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!