হোম » Uncategorized » কেরাণীগঞ্জে প্লাস্টিক কারখানার দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন

কেরাণীগঞ্জে প্লাস্টিক কারখানার দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন

শ্রমিক নিরাপত্তা ফোরামের উদ্যোগে শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদ (স্কপ), জাতীয় ট্রেড ইউনিয়ন ফেডারেশন ও মানবাধিকার সংগঠনসমূহের নেতৃবৃন্দ আজ ১৮ ডিসেম্বর ২০১৯ (বুধবার) কেরাণীগঞ্জের হিজলতলা এলাকার প্রাইম পেট এন্ড প্লাস্টিকস ইন্ডাস্ট্রিজে সংঘটিত অগ্নিকান্ডের ঘটনাস্থল পরিদর্শন এবং ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিক ও স্থানীয় অধিবাসীদের সাথে মতবিনিময় করেন। প্রতিনিধি দলে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় শ্রমিক জোটের সভাপতি মেজবাহউদ্দীন আহমেদ, জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসাইন, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট এর সভাপতি রাজেকুজ্জামান রতন, শ্রমিক নিরাপত্তা ফোরামের ভারপ্রাপ্ত সদস্য সচিব সেকেন্দার আলী মিনা, আওয়াজ ফাউন্ডেশনের ডিরেক্টর (অপারেশন) নাহিদুল হাসান নয়ন, আইন ও সালিশ কেন্দ্রের সিনিয়র ডেপুটি ডিরেক্টর নিনা গোস্বামী, বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড এন্ড সার্ভিসেস ট্্রাস্ট এর সহকারী পরিচালক (আইন) রাশেদুল ইসলাম, বাংলাদেশ শ্রম অধিকার ফোরামের যুগ্ম সম্পাদক লাভলী ইয়াসমিন, নাগরিক উদ্যোগের প্রোগ্রাম অফিসার মাহবুব জুয়েল, বিল্স এর প্রোগ্রাম অফিসার সাইফুজ্জামান মেহরাব প্রমুখ।

মতবিনিময়কালে শ্রমিক নিরাপত্তা ফোরাম নেতৃবৃন্দ কেরাণীগঞ্জ প্লাস্টিক কারখানা, গাজীপুরের লাক্সারি ফ্যান ফ্যাক্টরিসহ সকল কর্মক্ষেত্রে সংঘটিত দুর্ঘটনায় দায়ীদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি, ক্ষতিগ্রস্তদের উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ ও কার্যকর পরিদর্শন ব্যবস্থা নিশ্চিত করার দাবি জানান। তারা বলেন আবাসিক এলাকায় ঝুঁকিপূর্ণ কারখানা শুধুমাত্র শ্রমিকদের নিরাপত্তা ঝুঁকিই বাড়ায় না, এলাকার সাধারণ মানুষের জীবনকেও হুমকির মুখে ফেলে। এসময় বক্তারা সকল ঝুঁকিপূর্ণ কারখানা চিহ্নিত করে অবিলম্বে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জোর দাবি জানান। উল্লেখ্য, গত ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে ঢাকার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জের চুনকুটিয়ার হিজলতলা এলাকার প্রাইম পেট এন্ড প্লাস্টিকস ইন্ডাস্ট্রিজ কারখানায় অগ্নিকান্ডে এ পর্যন্ত ২০ জন শ্রমিক মারা গেছেন এবং গুরুতর দগ্ধ ১২ জন শ্রমিক চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে রয়েছেন।

শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!