JavaScript must be enabled in order for you to see "WP Copy Data Protect" effect. However, it seems JavaScript is either disabled or not supported by your browser. To see full result of "WP Copy Data Protector", enable JavaScript by changing your browser options, then try again.
সংবাদ শিরোনাম:

পোশাক শ্রমিকদের বেতন বাড়ল ছয় গ্রেডে

আওয়াজ অনলাইন : পোশাক শ্রমিকদের মজুরি বৈষম্য দূর করতে নতুন মজুরি কাঠামো ঘোষণা করেছে সরকার। এক্ষেত্রে সর্বশেষ মজুরি কাঠামোর ছয়টি গ্রেডের বেতন বেড়েছে।রবিবার শ্রম মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে মালিক-শ্রমিক ও প্রশাসনের প্রতিনিধিদের নিয়ে গঠিত ত্রিপক্ষীয় কমিটির বৈঠক শেষে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি এই সিদ্ধান্তের কথা জানান।

মন্ত্রী বলেন, সংশোধিত এই কাঠামো ২০১৮ সালের ১ ডিসেম্বর থেকে কার্যকর ধরা হবে। আর বাড়তি অংশের টাকা ফেব্রুয়ারির বেতনের সঙ্গে সমন্বয় করা হবে। আগামী সাত দিনের মধ্যে সংশোধিত কাঠামোর গেজেট প্রকাশ করা হবে বলে জানান তিনি।

নতুন মজুরি কাঠামোতে যাতায়াত, বাড়িভাড়া, চিকিৎসার জন্য বরাদ্দ বাড়ানো ছাড়াও মূল মজুরির সঙ্গে পাঁচ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট ঘোষণা করা হয়েছে।

প্রথম গ্রেডের একজন কর্মী সব মিলিয়ে ১৮ হাজার ২৫৭ টাকা বেতন পাবেন। এই গ্রেডে ২০১৮ সালে ১৭ হাজার ৫১০ টাকা করা হয়েছিল। ২০১৩ সালের বেতন কাঠামোতে এই গ্রেডের মজুরি ছিল ১৩ হাজার টাকা।

দ্বিতীয় গ্রেডের সর্বমোট বেতন ধরা হয়েছে ১৫ হাজার ৪১৬ টাকা। ২০১৩ সালের বেতন কাঠামোতে এই গ্রেডে ১০ হাজার ৯০০ টাকা বেতন ছিল। ২০১৮ সালের গেজেটে তা ১৪ হাজার ৬৩০ টাকা করা হয়েছিল।

তৃতীয় গ্রেডের সব মিলিয়ে বেতন ধরা হয়েছে ৯ হাজার ৮৪৫ টাকা। যা ২০১৩ সালের বেতন কাঠামোতে ৬ হাজার ৮০৫ টাকা এবং ২০১৮ সালের গেজেটে ৯ হাজার ৮৪৫ টাকা করা হয়েছিল।

চতুর্থ গ্রেডে সর্বমোট বেতন ধরা হয়েছে ৯ হাজার ৩৪৭ টাকা। এই গ্রেডে ২০১৩ সালে বেতন ৬ হাজার ৪২০ টাকা ছিল। ২০১৮ সালে করা হয়েছিল ৯ হাজার ২৪৫ টাকা।

পঞ্চম গ্রেডে বেতন ঠিক হয়েছে ৮ হাজার ৮৭৫ টাকা। এটা সব মিলিয়ে ধরা হয়েছে। ২০১৩ সালে এই গ্রেডে ৬ হাজার ৪২ টাকা এবং ২০১৮ সালের ছিল ৮ হাজার ৮৭৫ টাকা।

ষষ্ঠ গ্রেডের সর্বমোট বেতন ৮ হাজার ৪২০ টাকা ধরা হয়েছে। ২০১৩ সালের বেতন কাঠামোতে তা ছিল ৫ হাজার ৬৭৮ টাকা। ২০১৮ সালে করা হয়েছিল ৮ হাজার ৪০৫ টাকা।

সপ্তম গ্রেডের মজুরি সব মিলিয়ে ৮ হাজার টাক ধরা হয়েছে। ২০১৩ সালের বেতন কাঠামোতে সর্বনিম্ন গ্রেডের বেতন ছিল ৫৩০০ টাকা।

উল্লেখ্য, বেতন কাঠামোতে বৈষম্যের অভিযোগ এনে পোশাক শ্রমিকদের এক সপ্তাহ ধরে চলা আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে বিষয়টি সমাধানে পাঁচটি গ্রেডেই মজুরি সমম্বয়ের জন্য গতকাল শনিবার (১২ জানুয়ারি) নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার রাতে এ সমস্যার সমাধানে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ও সচিব এবং পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ-র নেতাদের গণভবনে ডেকে নেন প্রধানমন্ত্রী। এরপর তাদের সঙ্গে কথা বলে বিরাজমান সমস্যা নিরসনে প্রধানমন্ত্রী শ্রমিকদের স্বার্থে ৩, ৪ ও ৫ নম্বর গ্রেডের পাশাপাশি ১ ও ২ নম্বর গ্রেডের মজুরি সমন্বয়ের নির্দেশ দেন।
/এইচ.

সংবাদ পড়ুন, লাইক দিন এবং শেয়ার করুন

Comments

comments

About আওয়াজ অনলাইন

x

Check Also

গুলি করে শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন করা সম্ভব নয়

মো: ইরফান উল হক, রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি: রাঙামাটি আসনের সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার বলেন, গুলি করে শান্তি ...

error: Content is protected !!