হোম » জাতীয় » দেশে রিজার্ভের কোন সংকট নেই: প্রধানমন্ত্রী

দেশে রিজার্ভের কোন সংকট নেই: প্রধানমন্ত্রী

আওয়াজ অনলাইনঃ যশোর জনসভায় প্রধানমন্ত্রী, রিজার্ভ নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তোলে কিন্তু দেশে রিজার্ভের কোন সংকট নেই বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রিজার্ভ কোথাও যায়নি, মানুষের কল্যাণেই ব্যবহার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার বিকেলে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের জনসভায় যোগ দিয়ে নেতাকর্মীদের উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দীর্ঘ আড়াই বছর পরে প্রত্যক্ষভাবে জনসভায় এসে উৎফুল্ল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজের বক্তব্যে তুলে ধরেন যশোরের উন্নয়নে নেয়া সরকারের নানা উদ্যোগের কথা। যশোরে জনসভায় দেয়া বক্তব্যে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া ও তার পুত্র সাজাপ্রাপ্ত আসামি। এমন দলের কাছে জনগণ কী পাবে- সেই প্রশ্ন তোলেন তিনি।

নগরীর শামস-উল-হুদা স্টেডিয়ামে আগামী নির্বাচনে নৌকায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে জয়যুক্ত করতে যশোরবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করার যে পরিকল্পনা সরকার নিয়েছে তা বাস্তবায়নে যশোরবাসী তথা দেশবাসীর সহযোগিতা চান তিনি। এসময় যশোরবাসীর কাছে ওয়াদা চান শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর ৩৫ মিনিটের বক্তব্যের শেষ অংশ জুড়ে ছিল দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন প্রসঙ্গ। দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকার প্রতি যশোরবাসীর সমর্থন চেয়ে তিনি বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করার যে পরিকল্পনা সরকার নিয়েছে তা বাস্তবায়নে যশোরবাসী তথা দেশবাসীর সহযোগিতা চাই। নৌকার প্রার্থীদের বিজয়ী করবেন।

বিএনপির গুজবে কান না দিয়ে আওয়ামী লীগের প্রতি সমর্থন অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

যশোর জেলা আওয়ামী লীগের জনসভায় যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। হেমন্তের দুপুরে ২টা ৪০ মিনিটে যশোরের শামস-উল-হুদাস্টেডিয়ামে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভাস্থলে এসে উপস্থিত হোন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। তার প্রত্যক্ষ উপস্থিতিতে জনতার মাঝে উচ্ছাসের ঢেউ খেলে যায়।

সেসময় জনসভায় আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার অপেক্ষায় থাকা নেতাকর্মীরা স্লোগানে মুখরিত করেন স্টেডিয়াম। তার আগমন উপলক্ষে পুরো যাশোর শহর ব্যানার, ফেস্টুন আর তোরণে ছেয়ে গেছে।

এরআগে বেলা একটায় যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে জনসভা শুরু হয়। জেলা সাধারণ সম্পাদক ও সংসদ সদস্য শাহীন চাকলাদারের সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আবদুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ প্রমুখ।

দুপুর ১২টার আগেই কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় জনসভাস্থল। তবে এখনো দূরদূরান্ত থেকে হেঁটে মানুষ জনসভাস্থলের দিকে ছুটছেন। দলীয় নেতা-কর্মীদের স্লোগানে প্রকম্পিত হয়ে উঠে জনসভাস্থল। একই সঙ্গে চলে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সংসদ সদস্যদের বক্তব্য। আগামী সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে কি বার্তা নিয়ে আসছেন প্রধানমন্ত্রী, জনসভাস্থলে বসে মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে তা শোনার জন্য অপেক্ষার প্রহর গুনছেন বৃহত্তর যশোরবাসী।

শুধু যশোর নয়, আশেপাশের জেলা থেকেও জড়ো হচ্ছেন তারা সমাবেশস্থলে। জনসভায় আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার অপেক্ষায় থাকা নেতাকর্মীরা স্লোগানে মুখরিত করেন স্টেডিয়াম। পাঁচ বছর পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফর উপলক্ষে যাশোরে চলছে উৎসব।

এর আগে, বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে হেলিকপ্টারে করে যশোরের বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান বিমানঘাঁটিতে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী। এরপর বাংলাদেশ বিমান বাহিনী একাডেমিতে রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে যোগ দেন এবং পাসিং আউট কুচকাওয়াজে অভিবাদন গ্রহণ করেন।

সংগৃহীত

শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!