হোম » প্রধান সংবাদ » উল্লাপাড়ায় আবারও নৌকার মাঝি হলেন দুঃসময়ের ছাত্রলীগ নেতা ফিরোজ

উল্লাপাড়ায় আবারও নৌকার মাঝি হলেন দুঃসময়ের ছাত্রলীগ নেতা ফিরোজ

উল্লাপাড়া প্রতিনিধিঃ আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে ঘিরে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার ১২ নং পঞ্চকোশী ইউনিয়নে চায়ের দোকানে বসলেই যেন নির্বাচনী আমেজ, চায়ের সাথে চলছে সমিকরণ ,কার জনপ্রিয়তা কত, কে কত ভোট পাবে চলছে সেই সমিকরণ। স্থানীয় সাধারণ জনগনের মধ্যে চলছে আলোচনা সমালোচনা।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে এবারো পঞ্চকোশী ইউনিয়নে মো. ফিরোজ উদ্দিন নৌকা প্রতিক নিয়ে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। জনগণকে সাথে নিয়ে এবারও নিরঙ্কুস বিজয় নিয়ে আসবে তিনি।

নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে উঠান বৈঠক, ভোটারদের দোয়া ও সমর্থন জানিয়ে ছুটে চলছেন প্রার্থী সাধারণ মানুষের কাছে পৌছে দিচ্ছে বিগত ৫ বছরের নানান উন্নয়নের কথা। দ্বিতীয় বারের মতো নির্বাচিত হলে পঞ্চকোশী ইউনিয়নের উন্নয়নের বাকি কাজগুলো সবাইকে সাথে নিয়ে শেষ করার চেষ্টা করবো।

জানা যায়, দীর্ঘ দিন থেকে রাজনীতি করছেন তিনি, আওয়ামীলীগের সাথে জড়িয়ে আছেন দীর্ঘ দিন থেকে ,তাই তো দিনরাত পঞ্চকোশী ইউনিয়নের মানুষদের কাছে ছুটে চলেছেন এই বর্তমান চেয়ারম্যান। চালিয়ে যাচ্ছেন সাধারণ ভোটারদের সাথে মত বিনিময় ও ঘরোয়া মিটিং বৈঠক। দ্বিতীয় বারের মতো চেয়ারম্যান হওয়ার আস্থা কুড়িয়েছেন জনসাধারণের মাঝে। বর্তমানে জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকা ফিরোজ উদ্দিন চেয়ারম্যান ইউনিয়নবাসীর অন্তরে জায়গা করে নিয়েছেন। এবারো ইউনিয়নবাসী বিপুল ভোটে ফিরোজ উদ্দিনকে নির্বাচিত করবেন।

আওয়ামীলীগের দূ:সময়ে দিয়েছিলেন নেতৃত্ব ,জীবদ্দশায় রাজনীতির রোষানলে পড়ে একাধিক মামলা খেয়েছেন আওয়ামীলীগের রাজনীতি করার কারণে। সাধারণ মানুষের অতিপরিচিত মূখ তিনি, সবসময় পাশে থাকেন সাধারণ মানুষের, তাই তো সাধারণ মানুষ সমস্যায় পড়লে ছুটে চলেন তার কাছে , সাধারণ মানুষের ভরসাস্থল হিসেবে পরিচিত লাভ করছেন এই পঞ্চকোশী ইউনিয়নের ফিরোজ উদ্দিন চেয়ারম্যান।

১২ নং পঞ্চকোশী ইউনিয়নের সফল চেয়ারম্যন মোঃ ফিরোজ উদ্দিন বলেন, দ্বিতীয় বারের মতো ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতিক নিয়ে অংশ গ্রহণ করেছি। আমি ২০০১ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত পঞ্চকোশী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। ২০১৪ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। এবং ২০১৬ সালে তৃনমুল ভোটে প্রথম স্থান অধিকার করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতিক দেয়। বিপুল ভোটের ব্যাবধানে আমি জয়লাভ করি।

তিনি আরও বলেন, আওয়ামীলীগের দূ:সময়ে আমি জামায়ত-বিএনপিথর রাজনীতির রোষানলে পড়ে একাধিক মামলা খেয়েছি। আমি তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সাথেই আছি। এবারের নির্বাচনে বিপুল ভোটে নৌকা জয়ী হবে ইনশাআল্লাহ।

শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!