হোম » প্রধান সংবাদ » মৌলভীবাজারের বড়লেখায় প্রতিপক্ষের দা’য়ের  কুপে আহত ব্যবসায়ীর মৃত্যু

মৌলভীবাজারের বড়লেখায় প্রতিপক্ষের দা’য়ের  কুপে আহত ব্যবসায়ীর মৃত্যু

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলায় পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের দা’য়ের আঘাতে গুরুতর আহত ব্যবসায়ী আব্দুল আহাদ (৪০) বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। তিনি উপজেলার দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউপির সুজাউল হরিনগর গ্রামের শফিক উদ্দিনের ছেলে ও স্থানীয় অফিস বাজারের মুদি ব্যবসায়ী।

ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দা উদ্ধার করেছে। শনিবার সকাল পর্যন্ত থানায় এব্যাপারে কোন অভিযোগ দায়ের করেনি বলে পুলিশ সুত্রে জানা গেছে। তবে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় ব্যবসায়ী আব্দুল আহাদ দোকানের উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হন। পথে পূর্ব থেকে ঔৎ পেতে থাকা চন্ডিনগর গ্রামের মৃত রজব আলীর ছেলে হোসেন আহমদ ওরফে মাহতাব উদ্দিন তার মাথায় ধারালো দা দিয়ে অতর্কিত হামলা চালিয়ে পালিয়ে যায়। রক্তাক্ত অবস্থায় ব্যবসায়ী আব্দুল আহাদকে উদ্ধার করে প্রথমে বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে পরে তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাত ১২টায় সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু ঘটে।

 

স্থানীয় একটি সুত্র জানায়, নারীঘটিত কারণে ব্যবসায়ী আব্দুল আহাদ খুন হন। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এবং ঘাতক মাহতাবের বাড়ি থেকে হামলায় ব্যবহৃত রক্তমাখা ধারালো অস্ত্র (দা) উদ্ধার করেছে।

বড়লেখা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ইয়াছিনুল হক জানান, খবর পেয়েই পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। হামলাকারীর বাড়ি থেকে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দা উদ্ধার করেছে। সিলেট কোতোয়ালী থানা পুলিশ নিহত আব্দুল আহাদের লাশের সুরত হাল প্রতিবেদন তৈরী ও ময়না তদন্ত শেষে ২৪ জুলাই শুক্রবার বিকেলে স্বজনদের নিকট লাশ হস্তান্তর করে। এব্যাপারে থানায় এখনও কেউ মামলা দেননি। অভিযুক্ত ব্যক্তি পুলিশের নজরদারীতে রয়েছে, তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!