হোম » আইন-আদালত » না’গঞ্জে স্বামী স্ত্রী’র হত্যায় ৬ জনের মৃত্যুদন্ড

না’গঞ্জে স্বামী স্ত্রী’র হত্যায় ৬ জনের মৃত্যুদন্ড

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে স্ত্রী খাদিজাকে হত্যার জন্য খুনি ভাড়া করে আবদুর রহমান। হত্যাকারীরা তাকে খাদিজাকে দলবদ্ধ ধর্ষণের পর হত্যা করে। কিন্তু হত্যার পর চুক্তির টাকা না দেওয়ায় হত্যা করা হয় রহমানকেও। দীর্ঘ ১৩ বছর পর সেই খুনের ঘটনার সাথে জড়িত ৬ জনকেই মৃত্যুদÐ দিয়েছে আদালত। গতকাল সোমবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক নাজমুল হক শ্যামলের আদালত এই মৃত্যুদন্ড ঘোষণা করা হয়। রায় ঘোষণার সময় ৬ আসামীর মধ্যে আরিফুল ইসলাম (৩০), জামাল হোসেন (২০) ও সুমন (৩১) আদালতে উপস্থিত ছিলেন। অন্য ৩ আসামী সুমন, লোকমান ও শফিক পলাতক আছেন।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, ২০০৯ সালের ১১ আগস্ট রাতে রূপগঞ্জের দেবই গ্রামে খাদিজাকে ধর্ষণের পর হত্যা একই সাথে খাদিজার স্বামী আবদুর রহমানকে হত্যা করে খুনীরা। হত্যার পর তাদের দুইজনের মরদেহ রাস্তার পাশের একটি ডোবায় ফেলে দেয়। ১৬ আগস্ট স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই ঘটনায় খাদিজার বাবা বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় মামলা করেন। নারায়ণগঞ্জ কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান মৃত্যুদন্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ২০০৯ সালের ১১ আগষ্ট রূপগঞ্জ উপজেলার গঙ্গানগর গ্রামে আব্দুর রহমান ও তার স্ত্রী খাদিজা বেগমের সঙ্গে পারিবারিক বিরোধ দেখা দেয়। এতে আব্দুর রহমান তার স্ত্রীকে হত্যা করতে ছয় খুনিকে ১০হাজার টাকা ভাড়া করেন। এতে খুনিরা খাদিজাকে ডেকে নিয়ে একটি নির্জন স্থানে নিয়ে দলবদ্ধ ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ ডোবায় গুম করে রাখে। এরপর চুক্তি অনুযায়ী খুনিদের ১০ হাজার টাকা না দেওয়ায় সেসময় খুনিরা আব্দুর রহমানকেও হত্যা করে একই স্থানে ডোবায় লাশ গুম করে রাখেন। এ মামলায় আদালত ১২ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করে রায় ঘোষণা করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

এই বিষয়ে পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এডভোকেট রকিব উদ্দিন জানান, ২০০৯ সালের ১১ আগস্ট রূপগঞ্জের খাদিজা নামের এক মহিলাকে ৬ জন আসামী গণধর্ষণ করে মেরে ফেলে এই ঘটনা খাদিজার স্বামী দেখে ফেললে তাকেও মেরে ফেলে তারা। সেই ৬ আসামীর মধ্যে ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা আদালতে ১৬৪ ধারায় পুরো ঘটনা স্বীকার করে। নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের বিচারক নাজমুল হক শ্যামলের আদালতে আজকে এই ঘটনার সাথে জড়িত ৬ জন আসামীকেই মৃত্যুদন্ড প্রদান করেন। এই রায়ে বাদী পক্ষসহ তিনি সন্তুষ্ট বলে জানান তিনি।

শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!