হোম » প্রধান সংবাদ » ধুনটে ১৪ ঘন্টার ব্যবধানে ২ মৃতদেহ উদ্ধার

ধুনটে ১৪ ঘন্টার ব্যবধানে ২ মৃতদেহ উদ্ধার

এম.এ রাশেদ (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার ধুনটে ২ গৃহবধূর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। বুধবার সন্ধায় উপজেলার চিকাশী ইউনিয়নের বড় চাপড়া গ্রাম থেকে সাবিনা খাতুন ও বৃহস্পতিবার সকালে চৌকিবাড়ী ইউনিয়নের বিশ্বহরিগাছা গ্রামের মিম আকতারের লাশ উদ্ধার করে থানা পুলিশ।স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, প্রায় ১ বছর আগে উপজেলার চিকাশী ইউনিয়নের বড়চাপড়া গ্রামের সাহার আলীর ছেলের সাথে একই গ্রামের মৃত ছায়দার আলীর মেয়ে সাবিনা খাতুনের দ্বিতীয় বিবাহ হয়। সোহেল রানা প্রথম স্ত্রীকে দাম্পত্য জীবন চলাকালিন সময়ে সাংসারিক জটিলতায় দ্বিতীয় স্ত্রী সাবিনা খাতুন তার বাবার বাড়িতে অবস্থান করে। এ অবস্থা চলাকালীন ঘটনার দিন সন্ধ্যায় বাবার বাড়ীর শয়ন ঘরের ধরনার সাথে সাবিনা খাতুনকে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় দেখতে পায় স্থানীয়রা।

 

পরে খবর পেয়ে রাতেই থানা পুলিশ ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে। অপর দিকে ৬ মাস আগে উপজেলার চৌকিবাড়ী ইউনিয়নের বিশ্বহরিগাছা গ্রামের মোহাম্মাদ আলীর ছেলে নির্মাণ শ্রমীক সুমন মিয়ার সাথে একই উপজেলার সদর ইউনিয়নের বেলকুচী গ্রামের নজরুল ইসলামের মেয়ে মিম আকতারের দ্বিতীয় বিবাহ হয়। কিছুদিন আগে মিম আকতার নিজ বাবার বাড়িতে আসে। বুধবার বিকেলে মিম আকতারের শশুর বিয়াই বাড়ীতে এসে পুত্রবধূ মিম কে বাড়িতে নিয়ে যায়। বৃহস্পতিবার সকালে পরিবারের সবাই আহার শেষে স্বামী সুমন মিয়া শ্রমীকের কাজ করতে যায়। তার কিছুক্ষন পর মিমের শশুর ও শাশুরি স্থানীয় বাজারে ডাক্তারের কাছে যায়। ঘরের দরজা বন্ধ থাকায় স্থানীয়রা ডাকতে থাকে।

 

কোন সাড়া না পেয়ে স্থানীয়রা ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে। বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে শয়ন ঘরের ধরণার সাথে গলায় ওড়না পেঁচানো ঝুলন্ত অবস্থায় মিমকে দেখতে পায়। পরে খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে মৃতদেহ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। ধুনট থানার পরিদর্শন তদন্ত ফারুকুল ইসলাম ও এসআই নুরুজ্জামান ঘটনাস্থল২টি পরিদর্শন করে।ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ ইসমাইল হোসেন জানান, সাবিনা খাতুন ও মিম আকতার নামের ২জন গৃহবধূর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!