হোম » প্রধান সংবাদ » ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে সরকারি বন্দোবস্থ জমি দখলের অভিযোগ

ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে সরকারি বন্দোবস্থ জমি দখলের অভিযোগ

বরগুনা প্রতিনিধি:বরগুনা আমতলী উপজেলার টিয়াখালী গ্রামে মৃত্যু মফেজ প্যাদা নামে এক ব্যক্তির জমি জোর পূর্বক দখল করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।এব্যাপারে জমি উদ্ধার চেয়ে ভুক্তভোগী মৃত্যু মফেজ প্যাদার ছেলে মোঃ সোহেল রানা বাদী হয়ে মোঃ দেলোয়ার হোসেন, মোঃ মনোয়ার হাওলাদার, মোঃ বাদশা হাওলাদার, মোঃ আলী হাওলাদার, মোঃ মতিয়ার রহমান ও আবদুল সালাম মিয়াকে আসামি করে আমতলী সিনিয়ার জুডিশিয়াল মেজিস্টেট কোর্টে জালিয়াতি মামলা করেছে।
জানা যায়, মফেজ প্যাদা সরকারি বন্দোবস্থ দলিলে স্বাক্ষর দেয়। জমির দাগ নম্বর ২৩৪৩ বাটা ৩৫৪৮ কিন্তু ভূমি দস্যুরা জালিয়াতির মাধ্যমে একটি ভুয়া দলিল তৈরি করেছ যাতে মফেজ প্যাদার কোন স্বাক্ষর নেই। এবং ওই ভুয়া দলিলে দাগ ২৩৩৪ বাটা ৩৫৪৮। মফেজ প্যাদা জীবিত থাকা কালিন উক্ত জমি ভোগ দখল করেন। এমন কি তার মারা যাওয়ার পর তাহার ওয়ারিশগন উক্ত জমি ভোগ দখল করে আসছিলেন।
কিন্তু বর্তমানে মফেজ প্যাদার পরিবারটি উক্ত জমির কাছে গেলে উল্লেখিত ভূমিদস্যুরা মফেজ প্যাদার পরিবারটিকে নানা ভয় ভীতিসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে উক্ত জমি জোর পূর্বক ভাবে চাষ করেন। কিন্তু, বর্তমানে সই মোহর এবং হাল দাখিলা সবকিছু মফেজ প্যাদার নামে।
উল্লেখ্য সরকারী বন্দোবস্থ আইন ৭ অনুযায়ী উক্ত জমি ১৫ বছরের বিক্রয় করিতে পারবে না। আইন ১০ অনুযায়ী ১৫ বছর অতিক্রম হইবার পর এই বন্দোবস্থ জমি  আপনা হইতে স্থায়ী মালিকী বন্দোবস্থে পরিনত হবে।
কিন্তু আসামী পক্ষের জালিয়াতি  দলিল তৈরির তারিখ ৩০/১২/১৯৮৬ যা  আইনগত অবৈধ। এবং মফেজ প্যাদার দাগ খতিয়ানের সাথে উক্ত দলিলের কোন প্রকার মিল নেই।মৃত্যু হাফেজ প্যাদার জমি এভাবে জোর জুলুম চালিয়ে জোরপূর্বক জমি দখলের এমন ঘটনায় এলাকার লোকজন হতবাক হয়ে পড়েছে। বিষয়টি খতিয়ে  দেখে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ভূমিদস্যু দেলোয়ার হোসেন, মনোয়ার হাওলাদার, বাদশা হলাদার, আলি হলাদার, মতিউর রহমান, আব্দুস সালামের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্হা গ্রহনের দাবী জানিয়েছে এলাকার সচেতনমহল।
শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!