হোম » সারাদেশ » ‘বিশাল সমুদ্রকে ঘিরে উন্মোচিত হবে বিশাল  অর্থনীতির দ্বার’

‘বিশাল সমুদ্রকে ঘিরে উন্মোচিত হবে বিশাল  অর্থনীতির দ্বার’

মোহাম্মদ খোরশেদ হেলালী কক্সবাজার: বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সমুদ্র বিজয় সম্ভব হয়েছে। বিশাল এই সমুদ্রকে ঘিরে উন্মোচিত হবে সুনীল অর্থনীতির দ্বার।’
বৃহস্পতিবার (৮ জুন) সকালে বিশ্ব সমুদ্র দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ সমুদ্র গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বোরি) হলরুমে এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।
মন্ত্রী বলেন, ‘একটি নতুন খাত হিসেবে বাংলাদেশে ব্লু ইকোনমির ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে। এজন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ৪০ একর জমিতে বাংলাদেশ ওশানোগ্রাফিক রিসার্চ ইনস্টিটিউটের যাত্রা শুরু করেন। এ প্রতিষ্ঠান সমুদ্র সংক্রান্ত গবেষণা ও উন্নয়ন কার্যক্রম সম্পাদনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। সমুদ্রের বিশাল সম্পদ রক্ষার মাধমে এই সম্পদ ভোগ করতে পারবে এদেশের মানুষ। ’
এছাড়াও অনুষ্ঠানে সমুদ্র সম্পর্কে মানুষের সচেতনতা  বাড়িয়ে তোলার ব্যাপারে অতিথিরা গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন। এবং সমুদ্রের টেকসই ব্যবহার ও সুনীল অর্থনীতি অপার সম্ভাবনার গুরুত্ব তুলে ধরা হয়।
বাংলাদেশ ওশানোগ্রাফিক রিসার্চ ইনস্টিটিউটের বায়োলজিক্যাল বিভাগের জেষ্ঠ বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. সীমা রানীর সঞ্চালনায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনা করেন কেমিক্যাল ওশানোগ্রাফি বিভাগের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. হাসিবুল ইসলাম।
এতে প্রধান অতিথি ছিলেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান। ওই মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এবং বোরি’র অতিরিক্তে দায়িত্ব প্রাপ্ত  মো. মঈনুল ইসলাম তিতাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মুহম্মদ শাহীন ইমরান।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে জেলা সামুদ্রিক মৎস্য ও প্রযুক্তি কেন্দ্রের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. শফিকুর রহমান, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ওশানোগ্রাফি বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ মোসলেম উদ্দিন মুন্না, বোরি’র জেষ্ঠ বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা আবু সাঈদ মুহাম্মদ শরীফ, মো. জাকারিয়া, রূপক লোধ প্রমুখ।
১৯৯২ সালে ব্রাজিলের রিও ডি জেনেরিওতে প্রকৃতি ও উন্নয়ন নিয়ে একটি কনফারেন্স হয়। তারপর থেকে প্রতি বছর বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পালিত হয়ে আসছে বিশ্ব সমুদ্র দিবস।

Loading

error: Content is protected !!