হোম » প্রধান সংবাদ » বালু উত্তোলন ভাঙ্গন ঝুঁকিতে শতাধিক বিঘা ফসলী জমি

বালু উত্তোলন ভাঙ্গন ঝুঁকিতে শতাধিক বিঘা ফসলী জমি

এম. এ. রাশেদ বগুড়া প্রতিনিধি:বগুড়ার ধুনট উপজেলার নিমগাছী ইউনিয়নের নাংলু-বমগাড়া বালুয়া সরকারি খালে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে গভীর তলদেশ থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এতে খালের বিভিন্ন প্রজাতির দেশীয় মাছ ক্ষতিগ্রস্থ সহ তীরবর্তী ফসলী জমি ও ঘরবাড়ি ভাঙ্গন ঝুঁকিতে পড়েছে।স্থানীয়সূত্রে জানাগেছে, নিমগাছী ইউনিয়নের বাঙ্গালী নদীর শাখা বালুয়া খাল। ওই খালের বমগাছা স্টিলের বেইলী সেতুর উত্তর পার্শে¦ ভাসমান ভাবে প্লাস্টিকের ড্রামের ওপর ড্রেজার মেশিন বসিয়ে পাইপের সাহায্যে গভীর তলদেশ থেকে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। গত এক সপ্তাহ ধরে ড্রেজার মেশিনের সাহায্যে বালু উত্তোলনের কারনে খালের দু’তীরে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে।

নাংলু গ্রামের দরিদ্র কৃষক রফিক মিয়া, হাসান আলী ও বমগাড়া গ্রামের রহমত উল্লাহ্ জানান, নাংলু গ্রামের আমজাদ হোসেনের ছেলে বাটুল মিয়া ও তোফাজ্জল হোসেন সরকারি ওই খালে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে গত এক সপ্তাহ যাবত অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছে। সেই বালু পাকা রাস্তার পাশে ফেলে সেখান থেকে ট্রাকে করে বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি করছেন তারা। খালের পানিতে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলনের কারনে দেশীয় মাছ ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। এছাড়া ইতিমধ্যে খালের দুই তীরে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। এভাবে বালু উত্তোলন অব্যাহত থাকলে শতাধিক বিঘা ফসলী জমি ও ঘরবাড়ি ভাঙ্গনের কবলে পড়বে। তাই সরকারি ওই খাল থেকে বালু উত্তোলন বন্ধ করতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

তবে বালু ব্যবসায়ী বিটল মিয়া বলেন, স্থানীয় এক জনপ্রতিনিধির সাথে কথা বলে বালু উত্তোলন করছি। এতে ফসলী জমির ক্ষতি হবে না বলে তিনি দাবি করেন। ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাজিয়া সুলতানা বলেন, খালের পানিতে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করা হলে খোঁজ নিয়ে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!