হোম » সারাদেশ » লালমনিরহাট জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা পাচ্ছেন ২০ গুণীজন ও সংগঠন

লালমনিরহাট জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা পাচ্ছেন ২০ গুণীজন ও সংগঠন

মোঃ মাসুদ রানা রাশেদ, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: বাঙ্গালি জাতির প্রতিটি আন্দোলন-সংগ্রাম ও অর্জনে বরাবরের ন্যায় বিশেষ ভূমিকা রেখে এসেছেন এ দেশের শিল্পী ও সংস্কৃতিকর্মীরা। কণ্ঠ সংগীত, নৃত্যকলা, যন্ত্রশিল্পী, চারুকলা, ফটোগ্রাফি, নাট্যকলা, চলচ্চিত্র, আবৃত্তি, যাত্রা শিল্প, লোক সংস্কৃতি, আঞ্চলিক সৃজনশীল সাংস্কৃতিক সংগঠন/ সৃজনশীল সাংস্কৃতিক সংগঠক, সৃজনশীল সংস্কৃতি গবেষক সংগীতসহ শিল্পের সব শাখার মাধ্যমে তাঁদের অবদান অপরিসীম।
হাজার বছরের সমৃদ্ধ ঐতিহ্যের লালন, ভাষা আন্দোলন ও মহান মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে আজও কাজ করে যাচ্ছেন শিল্পী ও সংস্কৃতিকর্মীরা। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রাখতে তারা নিঃস্বার্থভাবে অবদান রেখে চলেছেন।
দেশের শিল্প-সংস্কৃতির ক্ষেত্রে লালমনিরহাট জেলা পর্যায়ে বিশেষ অবদানের জন্য গুণীজনদের অবদানকে সম্মান ও স্বীকৃতি জানাতে লালমনিরহাট জেলা শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে ২০১৪ সাল থেকে দেয়া হচ্ছে ‘জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা’।
এবার বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য ‘জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা ২০১৯, ২০২০, ২০২১ ও ২০২২’ দেয়া হচ্ছে ১৯ গুণী ব্যক্তিত্ব ও ১টি সংগঠনকে। লালমনিরহাট শিল্পকলা একাডেমি সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। নীতিমালা অনুযায়ী জেলা সম্মাননা প্রদান কমিটির সকল সদস্যগণ কর্তৃক সম্মাননার জন্য মনোনীতদের নির্বাচন করে থাকে। ‘জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা’-এর জন্য মনোনীত ব্যক্তি/ব্যক্তিদের প্রত্যেককে একটি করে সম্মাননা স্মারক এবং সনদপত্র ও টাকার চেক প্রদান করা হবে।
জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা প্রদানের জন্য তালিকাভুক্ত ক্ষেত্র ১২টি হলো- কণ্ঠ সংগীত, নৃত্যকলা, যন্ত্রশিল্পী, চারুকলা, ফটোগ্রাফি, নাট্যকলা, চলচ্চিত্র, আবৃত্তি, যাত্রা শিল্প, লোক সংস্কৃতি, আঞ্চলিক সৃজনশীল সাংস্কৃতিক সংগঠন/ সৃজনশীল সাংস্কৃতিক সংগঠক, সৃজনশীল সংস্কৃতি গবেষক
সংগীত।
করোনা মহামারির কারণে ‘জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা’-এর অনুষ্ঠান স্থগিত থাকায় এ বছর ২০১৯, ২০২০, ২০২১ ও ২০২২ চার বছরের সম্মাননা একসঙ্গে দেয়া হবে। ২০১৯ সালে যারা জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা পাচ্ছেন: সৃজনশীল সংস্কৃতি গবেষকঃ বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুল মজিদ মন্ডল, যাত্রাশিল্পীঃ মোঃ কুদ্দুস আলী, নাট্যকলাঃ নিশি কান্ত রায়, কণ্ঠ সংগীতঃ রাওয়ানা মার্জিয়া, লোক সংস্কৃতিঃ অনিল চন্দ্র বর্মন।
২০২০ সালে যারা জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা পাচ্ছেন: সৃজনশীল সংস্কৃতি গবেষকঃ মোঃ নজরুল ইসলাম মন্ডল, নাট্যকলাঃ দেওয়ান রফিকুল ইসলাম, যন্ত্রশিল্পীঃ মুকুল চন্দ্র রায়, কণ্ঠ সংগীতঃ মোছাঃ আলেয়া ফেরদৌসী, নৃত্যকলাঃ মোঃ আজাদ রহমান।
২০২১ সালে যারা জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা পাচ্ছেন: আবৃত্তিঃ মোঃ মোকলেছুর রহমান, যাত্রাশিল্পীঃ মোছাঃ কাজলী, সৃজনশীল সাংস্কৃতিক সংগঠকঃ বিশ্বজিৎ সাহা, চারুকলাঃ মোঃ মুনিম হোসেন খন্দকার, যন্ত্রশিল্পীঃ প্রদীপ কুমার রায়।
২০২২ সালে যারা জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা পাচ্ছেন: সৃজনশীল সাংস্কৃতিক সংগঠকঃ মোঃ মজিবর রহমান, নাট্যকলাঃ সাইফুর রহমান, যন্ত্রশিল্পীঃ শাওন রায়, কণ্ঠ সংগীতঃ দুলালী রায় ও সৃজনশীল আঞ্চলিক সাংস্কৃতিক সংগঠন ক্যাটাগরিতে স্বর্ণামতি নন্দিনী সাহিত্য ও পাঠচত্র, লালমনিরহাট।
শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!