হোম » সারাদেশ » বহুলী ইউপিতে নানা অভিযোগে জর্জরিত মুঞ্জু পেলেন নৌকা প্রতিক, ভরাডুবির আশংকা

বহুলী ইউপিতে নানা অভিযোগে জর্জরিত মুঞ্জু পেলেন নৌকা প্রতিক, ভরাডুবির আশংকা

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ৩নং বহুলী ইউনিয়নে মনজুরুল ইসলাম মুঞ্জুকে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ থেকে নৌকা প্রতিক দেওয়ায় হতাশ ইউনিয়ন বাসী। নানা অভিযোগে জর্জরিত মুঞ্জু এখন নৌকার মাঝি বলে অভিযোগ এলাকাবাসির। নৌকার ভরাডুবির আশংকায় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, যুবলীগ,ছাত্রলীগ,কৃষকলীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।
এলাকাবাসি অভিযোগ করে বলেন, নানা প্রলোভন দেখিয়ে গ্রামের সহজ সরল মানুষের কাছ থেকে চাকুরী দেয়ার কথা বলে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন তিনি। সরকারের দেয়া ত্রানের শাড়ী বিতরণ না করে নিজেই আত্মসাত করেছে। সরকারী রাস্তার গাছ কেটে বিক্রির অভিযোগ আছে তার বিরুদ্ধে। এছাড়াও এলাকায় গরু চুর সাথে জড়িত ছিলেন তিনি। নারী কেলেংকারীতে একধাপ এগিয়ে মুঞ্জু। গ্রাম্য শালিসে মাতবররা জুতার আঘাত করেছেন তাকে। আবার ব্যবসায়ীর পার্টনার সেজে প্রায় ১২ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন তিনি।

ব্যবসায়ী রাসেল শেখ জানান, মনজুরুল ইসলাম মুঞ্জু একজন প্রতারক। আমার সাথে ব্যবসায়ী পার্টনার হয়ে সুকৌশলে প্রায় ১২ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এখন আমার টাকা চাইলে বিভিন্ন রকম হুমকি ধামকি দিয়ে আসছে। ১নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি ইমরান তালুকদার জানান, মনজুরুল ইসলাম মুঞ্জু একজন অযোগ্যপ্রার্থী। মুঞ্জুকে নৌকা প্রতিক দেওয়ায় বহুলী ইউনিয়নে বিরোধী একাধিক প্রার্থী হয়েছে। ত্রানের শাড়ী বিক্রি, চাকরীর নামে টাকা হাতিয়ে নেয়া নারী কেলেংকারী ব্যক্তি কিভাবে নৌকা প্রতিক পেলো বুঝে আসেনা। এবার নৌকার ভরাডুবির আশংকায় আমরা ভুগছি।

২নং ওয়ার্ডের সভাপতি ও ইউপি সদস্য হাবি জানান, বহুলী ইউনিয়নে দলীয় কোন্দলের কারনে বার বার নৌকা পরাজিত হচ্ছে। আবার এমন জনের হাতে নৌকা তুলে দেয়া হচ্ছে সেখানেও নানা গুঞ্জন। তবে দলীয় কোন্দল মিমাংসা না হলে এবারও নৌকারভরাডুবি হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন। এবিষয়ে নৌকা প্রতিক পাওয়া মনজুরুল ইসলাম মুঞ্জু সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার বিরুদ্ধে একটি কুচক্রিমহল কাজ করছে। আমাকে মানুষের কাছে হেয়প্রতিন্ন করার জন্য বিভিন্ন ভাবে স্বরজন্ত করে আসছে। নৌকার জয় হবে ইনশা-আল্লাহ।

শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!