হোম » প্রধান সংবাদ » ঠাকুরগাঁওয়ে গত বছরের তুলনায় এবারে পানের দাম কম 

ঠাকুরগাঁওয়ে গত বছরের তুলনায় এবারে পানের দাম কম 

মোঃ ইসলাম ঠাকুরগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁওয়ে গত বছরের তুলনায় এবারে পানের দাম কম,পরিলক্ষিত করা গেছে। এতে করে খুচরা পান ব্যবসায়ীরা লাভবান হচ্ছেন। সরেজমিনে ঠাকুরগাঁও পুরাতন  বাস স্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও রোড, শিবগঞ্জ চৌরাস্তা,শিবগঞ্জ বাজার,রাণীশংকৈল, পীরগঞ্জ বাজারসহ বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে গত বছরের তুলনায় এবারে পানের দাম কিছুটা  কম ঠাকুরগাঁও শিবগঞ্জ চৌরাস্তার খুচরা  পান ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর,  দীর্ঘ  ১২ বছর যাবত পান ব্যবসা করছেন এবং আব্দুর রশিদ  দীর্ঘদিন যাবত পানের ব্যবসা করেন তারা জানান  পান উৎপন্ন হয় রাজশাহীর মোহনগন্জ,  এবং কুঠিবাড়িতে সবচেয়ে বেশি পান উৎপন্ন  হয় এছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থানে পান উৎপন্ন হয়, গতবছর প্রচুর পরিমাণ শীত এবং কুয়াশার কারণে পান চাষীরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিলেন।
পান হলদে রং হয়ে যায় এবং অনেক পান  জ্বলে যায় সেজন্য গত বছরে খুব বেশি দামে পান  বিক্রয়   হয়েছে। প্রতি  প্রতি বিরা পান বিক্রয় হয়েছে  ৩০০/টাকা থেকে ৩৮০ টাকা  পর্যন্ত। সেতুলনায় এ বছরে পানের দাম কম যদিও এখন পর্যন্ত শীত এবং কুয়াশা ততটা  পড়েনি। ঠাকুরগাঁও পুরাতন  বাস স্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও রোড, শিবগঞ্জ চৌরাস্তা,শিবগঞ্জ বাজার,পীরগঞ্জ বাজারে  ছোট বড় বিভিন্ন সাইজের  পান বিক্রি হচ্ছে প্রতি বিরা  ৪০ টাকা থেকে ৬০ এবং ৭০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হতে দেখা গেছে। রাজ্জাক সুপার মার্কেটের দবিরুল ইসলাম, নজরুল ইসলাম, এবং এন্তাজুল ইসলাম জানান গত বছর ৫ টাকা দিয়ে এক খিলি পান খেলে মুখে বুঝা যেত না যে পান খাচ্ছি এ বছরে পাঁচ টাকা দিয়ে পান খেলে মুখটা ভরে যায়।
 পান যুগ যুগ ধরে চলে আসা একটি প্রধানত মুখশুদ্ধি।তাছাড়া সনাতন ধর্মে বিভিন্ন পূজায় পান পাতার ব্যবহার রয়েছে। খালি পানের স্বাদ ভাল না-হলেও চুন সুপারি দিলে ব্যাপারটাই জমে ‌যায়। তবে অনেকে পান খাওয়া স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর বলে মনে করেন। কোন জায়গা নেই যে যেখানে আপনি পান পাবেন না। পাড়ায় মোড়ে বাস স্টপেজ অন্য কিছুর দোকান থাকুক আর না থাকুক একটি পানের দোকান থাকবে।
শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!