হোম » প্রধান সংবাদ » লালমনিরহাটে নবম শ্রেণির ছাত্রী বিয়ের আয়োজন করায় কনের দাদা ও বরের চাচার কারাদণ্ড

লালমনিরহাটে নবম শ্রেণির ছাত্রী বিয়ের আয়োজন করায় কনের দাদা ও বরের চাচার কারাদণ্ড

আসাদ হোসেন রিফাত,লালমনিরহাটপ্রতিনিধিঃ লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় বাল্যবিয়ের আয়োজন করায় কনের দাদা ও বরের চাচার বিভিন্ন মেয়াদে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শনিবার (৯ নভেম্বর) দিনগত রাতে এ আদেশ দেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুহাম্মদ মনসুর উদ্দিন।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের গন্ধমরুয়া গ্রামের মৃত শুকর আলীর ছেলে কনের দাদা আব্দুল কুদ্দুস (৬৫), ও কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার ঘড়িয়ালডাঙ্গা ইউনিয়নের ভিমসারমা গ্রামের জয়নাল আবেদীনের ছেলে বরের চাচা হাফিজুল ইসলাম(৪৫)। তাদের মধ্যে আব্দুল কুদ্দুসকে দুই ও হাফিজুল ইসলামকে এক মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের গন্ধমরুয়া গ্রামের জাহাঙ্গীর আলীর মেয়ে বালাপুকুর উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী জাহেদা খাতুনের (১৬) সঙ্গে রাজারহাটের ভিমসারমা গ্রামের রিয়াজুলের ছেলে আঙ্গুরের (১৯) বিয়ের আয়োজন চলছে। এমন একটি গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ইউএনও মুহাম্মদ মনসুর উদ্দিন থানা পুলিশ নিয়ে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সবাই পালিয়ে গেলেও কনের দাদা আব্দুল কুদ্দুস ও বরের চাচা হাফিজুলকে আটক করে পুলিশ। বাল্যবিয়ের আয়োজন করার দায়ে কনের দাদাকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে দুই মাসের এবং বরের চাচা হাফিজুলকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে এক মাসের বিনাশ্রম করাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আটকরা জরিমানা দিতে ব্যর্থ হলে তাদের লালমনিরহাট কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক ইউএনও মুহাম্মদ মনসুর উদ্দিন।

আদিতমারী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম বলেন, সাজাপ্রাপ্তদের রাতেই লালমনিরহাট কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

শেয়ার করুন আপনার পছন্দের সোশ্যাল মিডিয়ায়
error: Content is protected !!