তীব্র ভ্যাপসা গরম আসতে পারে দাবদাহ

আওয়াজ অনলাইনঃ শীত শেষে আস্তে আস্তে আসছে ভ্যাপসা গরম। গরম আবহাওয়ায় প্রাণিকূলে বাড়ছে তৃষ্ণা। শহুরে জীবনের পাশাপাশি গ্রামীণ জীবনেও আগেভাগে চৈত্রের প্রকোপ লাগছে। ঋতুরাজ বসন্তের দ্বিতীয় মাসের শুরুতেই বসন্তের আমেজ বিদায় নিচ্ছে।

পঞ্জিকার পাতায় গ্রীষ্ম আগমনের বাকি প্রায় এক মাস। কিন্তু আগেভাগেই বিস্তার করেছে গ্রীষ্মের আমেজ। গরমের শুরুতে চলতি মার্চ মাসে একদিন কালবৈশাখী ঝড় হলেও তাপমাত্রা কমেনি। বরংচো গরমের মাত্রা বাড়ছে অস্বাভাবিক হারে। আর বিগত ফেব্রুয়ারিতে স্বাভাবিকের চেয়ে গড়ে ৯৯ ভাগ এবং জানুয়ারিতে ৯৭ ভাগ কম বৃষ্টিপাত হয়েছে, মানে বৃষ্টিই হয়নি বলা চলে।

রুক্ষ-শুষ্ক আবহাওয়ায় নদনদী, খাল-বিল, হাওর-বাঁওড় শুকিয়ে প্রায় তলানিতে ঠেকেছে। আবহাওয়া অধিদপ্তর থেকে জানা গেছে, দিনে দিনে তাপমাত্রা যেভাবে বাড়ছে তাতে মার্চ মাসের শেষের দিকে তাপপ্রবাহের সম্ভাবনা রয়েছে। গত কয়েক দিন যাবৎ দেশের বিভিন্ন স্থানে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরে থাকছে।

যশোরে প্রায় ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসে উঠেছে তাপমাত্রা। রাজধানীর তাপমাত্রাও ৩৫ ডিগ্রির বেশিতে পৌঁছে গেছে। এ বিষয়ে আবহাওয়া অধিদপ্তরের বিশেষজ্ঞ আবহাওয়াবিদ শামছুদ্দীন আহমেদ বলেন, তাপমাত্রা ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস হলে মৃদু তাপপ্রবাহ বলা হয়, ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস উঠলে মাঝারি ও ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস হলে এটিকে তীব্র তাপপ্রবাহ বলা হয়। আবহাওয়াবিদ আব্দুর রহমান বলেন, আবহাওয়ার যেভাবে বাড়ছে বৃষ্টিপাত না হলে দাবদাহ শুরু হতে পারে।

সংগৃহীত আর টিভি