ঘন কুয়াশায় আচ্ছন্ন হাতীবান্ধার পথ – ঘাট

মিজানুর রহমানঃ উত্তরের সীমান্তবর্তী জেলা লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলাসহ জেলার মোট পাঁচটি উপজেলায় সকাল থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত কুয়াশায় আচ্ছন্ন হয়ে থাকে পথ-ঘাট। মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ঘন কুয়াশা আর শীতের দাপটে বিপাকে পরেছে এখানকার খেটে খাওয়া মানুষ গুলো।
কুয়াশার তীব্রতা এতো বেশি যে ৫০ মিটার দুরের কোনো কিছুই দেখা যায়নি। এ সময় যানবাহনগুলোকে হেড লাইট জ্বালিয়ে চলাচল করতে দেখা গেছে। সকাল ১০টা পর্যন্ত রাস্তা-ঘাট ছিল এক রকম ফাঁকা। এদিকে গত রোববার সকাল থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির মতো কুয়াশাপড়ে। তবে দুপুর ১২টার পর সূর্যের দেখা মিললে কুয়াশা কেটে যায়। এর পাশাপাশি গত কয়েকদিন ধরে ঠান্ডার প্রকোপও বেড়েছে যার ফলে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এখানকার লোকজনের।
এদিকে গত দুইদিন ধরে দুপুরের পর সূর্যের দেখা মিললেও শীতের তীব্রতা কমেনি। লালমনিরহাট জেলায় গত কয়েকদিন ধরে মৃদু শৈত্য প্রবাহের বইছে। আর এর সাথে কয়েকদিন থেকে যোগ হয়েছে ঘন কুয়াশা। ফলে চরম দুর্ভোগে পড়েছে এ জেলার খেটে খাওয়া ও ছিন্নমূল মানুষ। রাতের এবং সকাল বেলা কুয়াশায় চারদিক আচ্ছন্ন হয়ে গেলেও দিনে ঠান্ডা কিছুটা কমছে। স্থানীয় আবহাওয়া অফিস সুত্র জানান গেছে, লালমনিরহাটে মৃদু শৈত্য প্রবাহ আরো কমে গিয়ে আগামী এক সপ্তাহ মাঝারি শৈত্য প্রবাহে পরিনত হতে পারে। গত ২৪ ঘন্টায় জেলার আশেপাশে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিলো।