বগুড়ার শিবগঞ্জে বাক প্রতিবন্ধী  শিশুকে ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

এম.এ রাশেদ, বগুড়া জেলা প্রতিনিধিঃ   বগুড়ার শিবগঞ্জে প্রতিবেশী এক চাচার দ্বারা বাক প্রতিবন্ধী ১৫ বছরের এক শিশুর ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার সকালে উপজেলার কিচক ইউনিয়নে এই ধর্ষণের ঘটনায় শিশুর বাবার লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পরপরই কয়েক ঘন্টার অভিযানে ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ।
শিবগঞ্জ থানা পুলিশ এবং এজাহার সূত্রে জানা যায়, ধর্ষণের শিকার শিশুটির মা ও বাবা ২ জনেই দিনমজুর।
শিশুটির বাকি বোনগুলোর বিবাহ হয়ে গেলেও বাক প্রতিবন্ধী হওয়ায় শুধুমাত্র ঐ শিশুটিই একা সারাদিন বাসায় থাকে মা-বাবা কাজ থেকে না ফেরা পর্যন্ত। এই সুযোগেই শিশুটির প্রতিবেশী এক চাচা কিচকের মৃত: আছাদ আলী ফকিরের ছেলে সাবার উদ্দিন ফকির (৪৫) তাকে ফুসলিয়ে ধর্ষণ করে। শিশুটি বাক-প্রতিবন্ধী হওয়ায় কোন চিৎকার চেঁচামেচীও করতে পারেনি পরে সাবার উদ্দিন বাড়ির ঝাপ তুলে বের হওয়ার সময় হঠাৎ শিশুটির মায়ের চোখে পরে যায়।
পরবর্তীতে শিশুটি প্রথমে তার মাকে ঈশারায় এবং বিভিন্নভাবে তার সাথে হওয়া নির্যাতনের ঘটনা বোঝানোর চেষ্টা করলেও তার মা বুঝতে না পারলেও কাজ থেকে ফিরে শিশুটির বাবা তা বুঝতে সক্ষম হয়। সাথে সাথে তিনি বাদী হয়ে ধর্ষক সাবার উদ্দিনের বিরুদ্ধে শিবগঞ্জ থানার লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
দ্রুততম সময়ের মাঝে নিজে অভিযান করে ধর্ষককে গ্রেফতার করা শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এস.এম বদিউজ্জামান জানান, শিশুটির বাবার অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথেই দ্রুততম সময়ের মাঝে ধর্ষক কে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং দাপ্তরিক কাজ শেষে শনিবার তাকে আদালতে প্রেরণ করা হবে। তিনি জানান, একজন বাক প্রতিবন্ধী শিশুকে ধর্ষণের এই ঘটনা সত্যিকার অর্থেই বিকৃত মানসিকতার পরিচয়।
তিনি সমাজের সকলকে নিজেদের সন্তানদের সঠিকভাবে নজরদারি করার অনুরোধ জানান এবং সামাজিক অবক্ষয় রোধে মানুষের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির কথা বলেন। সেই সাথে সমাজে এই ধরণের অপরাধের প্রবৃত্তি যদি প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবেও কারো মাঝে দেখা যায় তাদের সম্পর্কে পুলিশকে অবহিত করতে অনুরোধ জানান এই কর্মকর্তা।