আকিজে ঝুলন্ত বেল্ট ছিঁড়ে মেশিনে পড়ে দুই পেইন্টিং শ্রমিকের মৃত্যু

লথিফ রানাঃ নারায়ণগঞ্জ বন্দরের আকিজ গ্রæপের ময়দার কারখানায় পেইন্টিংয়ের কাজ করার সময় ঝুলন্ত বেল্ট ছিঁড়ে নীচে মেশিনের ভেতর পড়ে দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। নিহতরা হলেন, বন্দর একরামপুর এলাকার পান্না সিরাজের ভাড়াটিয়া কুদ্দুস গাজীর ছেলে রাজু (২৫) ও ফতুল্লার কাইমপুর এলাকার জসিমউদ্দিনের ভাড়াটিয়া অমল দাসের ছেলে অন্তর দাস (১৮)।

বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) দুপুর ১২টায় এ দুর্ঘটনা ঘটলে দুই ঘন্টা পর দুইটার দিকে রক্তাক্ত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে জরুরী বিভাগের ডা.তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

প্রত্যক্ষদর্শী শ্রমিকরা জানান, একটি ভবনের তৃতীয় তলায় রংয়ের কাজের জন্য বেল্ট লাগিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় দুপুর বারোটার সময় বেল্ট ছিঁড়ে নিচে মেশিনের মধ্যে পড়ে গেলে দুপুর দুইটার পর তাদের মেশিনের পাইপ কেটে তাদের নিথর দেহ বের করা হয়।

নিহতের স্বজনরা জানান, কাজ করার সময় ঝুলন্ত অবস্থায় তারা অক্সিজেনের অভাবে যন্ত্রনায় কাতরাতে থাকেন। এ সময় নিরাপত্তা বেল্ট ছিঁড়ে উচু থেকে নীচে পড়ে তাদের মৃত্যু হয়েছে। অক্সিজেন ও নিরাপত্তা সরঞ্জামের অভাবে তাদের মৃত্যু হয়েছে বলে তারা অভিযোগ করেন।

জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক গোলাম মোস্তফা জানান, মৃত অবস্থায় দুইজনকে আনা হলে ইসিজি পরীক্ষা করানোর পর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়। তবে তারা কোন দূর্ঘটনার শিকার হয়েছেন কিনা সে বিষয়ে কেউ কিছু বলেনি।

নিহত রাজু’র স্ত্রী অভিযোগ করেন তার স্বামী সকাল ১০ টায় কাজে যান। মারা যান দুপুর ১২ টারা দিকে ঘটনা ঘটলেও তাদের খবর দেয়া হয়েছে বিকেল ৩টায়।