Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
Home » আইন-আদালত » রূপগঞ্জে টিসিবির ২৫৫ বস্তা চাল উদ্ধার, ডিলারের কারাদন্ড
রূপগঞ্জে টিসিবির ২৫৫ বস্তা চাল উদ্ধার, ডিলারের কারাদন্ড

রূপগঞ্জে টিসিবির ২৫৫ বস্তা চাল উদ্ধার, ডিলারের কারাদন্ড

 রূপগঞ্জ প্রতিনিধি  : রূপগঞ্জের চণপাড়া এলাকায় র‌্যাব-১১ এর অভিযানে টিসিবির ২৫৫ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়েছে। রবিবার (১২ মে) রাতে স্থানীয় একটি চালের আড়ৎ থেকে র‌্যাবের একটি অভিযানিক দল এ চাল উদ্ধার করে। এসময় ঘটনার সঙ্গে জড়িত স্থানীয় ইউপি সদস্য বিউটি আক্তার কুট্টির মেয়ের জামাতা ডিলার মনির হোসেনকে আটক করা হয়। অভিযুক্তকে আটকের পর থেকে একটি বিশেষ মহল তাকে ছাড়িয়ে নিতে চালাচ্ছে নানান তদবির। ভ্রাম্যমান আদালত ডিলার মনিরকে এক মাসের কারাদন্ড প্রদান করে।

র‌্যাব-১১ এর পুলিশ সুপার আলেপ উদ্দিন জানান, অভিযুক্ত ডিলার মনির হোসেন তার শাশুড়ী স্থানীয় ইউপি সদস্য বিউটি আক্তার কুট্টির সহযোগীতায় সরকারি নায্যমূল্যের চাল তার মালিকানাধীন গোডাউনে অবৈধভাবে মজুদ ও সংরক্ষন করে রাখে। পরে এ চাল বিভিন্ন পাইকারী বাজারে বিক্রির পায়তারা করে আসছে। কায়েতপাড়া ইউনিয়নের মহিলা সংরক্ষিত আসনের মেম্বার বিউটি আক্তার কুট্টির মেয়ের জামাতা সরকারী সরকারি নায্যমূল্যের চালের ডিলার মনির হোসেন হতদরিদ্রদের চাল আত্বসাৎ করতে ভূয়া ক্রেতার স্বাক্ষরযুক্ত রশিদ দেখায়।

রবিবার রাতে র‌্যাবের একটি অভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডিলার মনিরের গোডাউনে অভিযান চালিয়ে তার গোডাউনে অবৈধভাবে হতদরিদ্রদের কেজির ৩০ কেজি ওজনের ২৫৫ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়েছে। এসময় আত্মসাৎকারীর মূল হোতা স্থানীয় ইউপি সদস্য বিউটি আক্তার কুট্টির মেয়ের জামাতা মনির হোসেনকে আটক করা হয়। তাকে আটকের পর থেকে তাকে ছাড়িয়ে নিতে একটি বিশেষ মহল জোর তদবির চালাচ্ছে। পরে স্থানীয়দের তোপের মুখে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) তরিকুল ইসলাম ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে অভিযুক্ত ডিলার মনিরকে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য বিউটি আক্তার কুট্টি বলেন, আমরা বিভিন্ন সময় চাল নেওয়ার জন্য এলকায় মাইকিং করেছি। কার্ডধারীরা চাল না নেওয়ায় গোডাউনে মজুদ রয়েছে। মজুদ থাকায় মনির হোসেনকে আটক করা হয়েছে। আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মনিরকে আটকের পর আমি কোন প্রকার তদবির করিনি।  রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মমতাজ বেগম বলেন, অভিযুক্তকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে সাজা দেয়া হয়েছে। আরো কেউ জড়িত থাকলে তাকেও আইনের আঁওতায় নেয়া হবে। এ ব্যপারে কাউকে ছাড় দেয়া হবেনা।

Please follow and like us:
error0
BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes
Scroll Up
error: Content is protected !!