JavaScript must be enabled in order for you to see "WP Copy Data Protect" effect. However, it seems JavaScript is either disabled or not supported by your browser. To see full result of "WP Copy Data Protector", enable JavaScript by changing your browser options, then try again.
সংবাদ শিরোনাম:

মঞ্চে সরাসরি দর্শকদের আনন্দ দিতেই বেশি ভাল লাগে-চলচ্চিত্র অভিনেত্রী রাত্রি

বগুরা প্রতিনিধিঃ মঞ্চে সরাসরি দর্শকদের আনন্দ দিতেই বেশি ভাল লাগে। সিনেমার জন্য যা করি তা উপভোগ করার সুযোগ কম থাকে। এজন্য আমি মঞ্চটাকে উপভোগ করার সুযোগ হাতছাড়া করিনা। ঢাকাই চলচ্চিত্রের কৌতুক অভিনেত্রী নাসিমা হাওলাদার রাত্রি সম্প্রতি দিনাজপুরে একটি ওপেন কনসার্টে যাবার প্রাক্কালে রাত্রির চলচ্চিত্রে নিয়ে আসার পিছনের মানুষ ঢাকাই চলচ্চিত্রের আরেক নক্ষত্র কৌতুক অভিনেতা বগুড়ার পালশা গ্রামের ’বাদল শেখ চলচ্চিত্র নাম এনার্জি বাদল’-এর বাসায় যাত্রা বিরতিকালে অভিনেত্রী রাত্রি এসব কথা বলেন।

বিশেষ এই সাক্ষাৎকারে তিনি কথা বলেছেন সাংবাদিক রায়হানুল ইসলাম-এর সঙ্গে। ঢাকার মেয়ে বগুড়ার দইয়ের পাশাপাশি ‘বগুড়া’র সজনে ডাটার পুরপড়ি (যাকে আমরা চরচড়ি বলি) খুব পছন্দ তার। দুলাভাই জিন্দাবাদ, আয়না সুন্দরী, মায়াবতী, অনেক সাধনার পর, সোনার ময়না পাখিসহ ১২টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন রাত্রি। কাজ করার অভিজ্ঞতা হয়েছে-মনতাজুর রহমান আকবর, বদরুল আলম খোকন, মালেক আফসারী, রাজু চৌধুরী, স্বপন চৌধুরীর মতো অনেক গুণী পরিচালকদের সঙ্গে।

২০০৭ সালে এনার্জি বাদল নাচে পারদর্শি মেয়েটিকে চলচ্চিত্রের জন্য প্রস্তাব করেন। আগ্রহ আর অভিজ্ঞতার স্বমন্বয়ে তিনি এখন চলচ্চিত্রের স্থায়ী আসনে বীরদর্পে এগিয়ে আছেন। বর্তমানে ২টি সিনেমা ও মঞ্চ নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন রাত্রি। রাত্রি জানান, কমেডি এ্যান্ড ফানি ক্যারেক্টরে স্বাচ্ছন্দ বোধ করি। তবে মঞ্চে সরাসরি দর্শকদের আনন্দ দিতেই বেশি ভাল লাগে। সিনেমার জন্য যা করি তা উপভোগ করার সুযোগ কম থাকে। এজন্য আমি মঞ্চটাকে উপভোগ করার সুযোগ হাতছাড়া করিনা।

বগুড়ায় বেড়াতে কেমন লাগে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বগুড়া একটা গোছালো শহর। আমার কাছে খুব ভাল লাগে। সব সুযোগ-সুবিধাই এখানে রয়েছে। জীবন মান অনেক উন্নত। বগুড়ার দই খুব পছন্দ করি। এখানেও বলবো- তবে.. ওজনে ঠকালেও স্বাদে-গুণে অনন্য। (উল্লেখ্য, বগুড়ায় এখন স্বরা সর্বস্ব দই রয়েছে। কিছুদিন আগে এনিয়ে একটা প্রতিবেদন প্রকাশ হয় সেই সূত্রে নিজে প্রমাণ সাপেক্ষে কথাটি উল্লেখ করেছেন রাত্রি।

ঢাকার মেয়ে বগুড়ার দইয়ের পাশাপাশি -‘বগুড়া’র সজনে ডাটার পুরপড়ি (যাকে আমরা চরচড়ি বলি) পছন্দ করি। রান্নার প্রশংসা এখানে করতেই হয়। এখানকার রান্না অত্যন্ত মজাদার। আরো একটি বড় ব্যাপার বগুড়া’র মানুষ আতিথিয়তা প্রিয় মানুষ। তবে তিনি জানান, জীবনের নানা বাঁক, এই বাঁকে কত কি ঘটে! আমরা শিল্পীরা সেই বাঁকে মানুষকে একটু আনন্দ দিই। এই আনন্দ দেয়া ও নেয়া বড়ই নেশা। এ থেকে আমাদের নিস্তার নেই। চাইওনা।

সংবাদ পড়ুন, লাইক দিন এবং শেয়ার করুন

Comments

comments

About আওয়াজ অনলাইন

x

Check Also

বগুড়ার শেরপুরে বিশ্ব যক্ষা দিবস পালিত

এম. এ. রাশেদ বগুড়া প্রতিনিধিঃ এখনই সময় অঙ্গিকার করার, যক্ষা মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার” এই প্রত্যায় নিয়ে ...

error: Content is protected !!