JavaScript must be enabled in order for you to see "WP Copy Data Protect" effect. However, it seems JavaScript is either disabled or not supported by your browser. To see full result of "WP Copy Data Protector", enable JavaScript by changing your browser options, then try again.
সংবাদ শিরোনাম:

“গ্রীস্মের এই প্রখর রোদে রসালো ও টস টসে পাকা লিচু”  সোনারগাঁয়ের লিচু বাজারে আসছে!

মোঃ কবির হোসেন, নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি:

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের মৌসুমি ফল লিচু পাকতে শুরু করেছে। বাগান গুলোতে ঝুলছে থোকায় থোকায় লিচু । গ্রীস্মের এই প্রখর রোদে রসালো ও টস টসে পাকা লিচু গুলো দেখলে জিভে পানি এসে যায়। পাকা কদমী লিচুর, লোভনীয় লালিমায় হাতছনি দিয়ে ডেকে বলে কাছে এসে জিভের তৃপ্তী মিটাও। এরই মধ্যে লিচু ব্যবসায়ী ও ফেরিওলাদের ব্যস্ততা বেড়ে গেছে। লিচু গাছ গুলোকে দেওয়া হয়েছে ভিন্ন সাজ। কাক ও বাঁদুড়ের উপদ্রোপ থেকে লিচুকে রক্ষার জন্য গাছে গাছে স্থাপন করা হয়েছে বৈদ্যুতিক বাতি, বাশ ও টিনের তৈরী বাজনা। এসব বাজিয়ে কখনওবা  হৈ-হৈ শব্দ করে সময় কাটছে তাদের। এরই মধ্যে প্রতিটি লিচু গাছের ডালে থোকায় থোকায় ঝুলছে কাঁচা ও অর্ধ পাকা লিচু। বাগান মালিকদের মতে আগামী কয়েকদিনের মধ্যে সোনারগাঁয়ের লিচু বাজারে আসতে শুরু করবে। লিচুর বাগানীদের মতে গত বারের তুলনায় এবার লিচুর ফলন ভাল হয়েছে।

গতকাল উপজেলার কয়েকটি লিচু বাগান মালিকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত বছরের ন্যায় এ বছর লিচুর ভাল ফলন ভালো হয়েছে। ব্যবসায়ীদের মতে দেশের অন্যসব অঞ্চলের লিচু বাজারে আসার আগে সোনারগাঁওয়ের লিচু বাজারে আসে বলে ক্রেতাদেরও আকর্ষন থাকে এ লিচুতে। তাই ব্যবসায়ীরা সোনারগাঁয়ের লিচু বিক্রী করে অধিক মুনাফা পেয়ে থাকেন।

তথ্য মতে, উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় প্রায় ৩ শতাধীক লিচু বাগান রয়েছে। এদের মধ্যে খাসনগর, চিলারবাগ, দৈলরবাগ, পানাম, কৃষ্ণপুরা, গোবিন্দপুর, দত্তপাড়া, বাগমুছা, অর্জুন্দী, হাতকোপা, দরপত, ছাপেরবন্ধ, গোয়ালদী, টিপরদী, হরিষপুর, ভট্টপুর, লোকশিল্প জাদুঘর, গাবতলী, হারিয়া, বৈদ্যেরবাজার, তাজপুর, সাদীপুর, বাড় সাদীপুর, ইছাপাড়া, দুলালপুর, বারদী, সেনপাড়া, বালুয়া দিঘীরপাড় এলাকা উল্লেখ্যযোগ্য।

পৌরসভার টিপরদী গ্রামের ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান, তাজপুর গ্রামের বাবুল হোসেন, হুমায়ন কবির জানান, সোনারগাঁয়ে কদমী, চায়না-৩, মোজাফফর পুরি, এলাচী, বাদামী (পাতি) এ পাচঁ ধরনের লিচুর চাষ হয়ে থাকে। কদমী লিচু আকারে বড় ও সুস্বাদু হওয়ায় অন্য লিচুর তুলনায় কদমি লিচু বিক্রি করে অধিক মুনাফা পাওয়া যায়। তাই তারা এ লিচু চাষে মনোযোগি হয়ে পড়েছেন। তাদের মতে গত বছরের তুলনায় এ বছর লিচুর ভালো ফলন হয়েছে। তাই তারা এবার অধিক মুনাফা পাওয়ার আশা করছেন।

লিচু ব্যবসায়ীদের ধারনা প্রথম দিকে বাজারে আসা প্রতি ১শ’ কদমি লিচু ৬০০ থেকে ৮০০ টাকা দরে বিক্রি হতে পারে। পুরো দমে লিচু বাজারে আসলে বোম্বাই লিচু ৩০০ থেকে ৪০০ টাকা, পাতি লিচু ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা এবং কদমী লিচু ৫০০ থেকে ৭০০ হাজার টাকা দরে বিক্রি হয়।

লিচু ব্যবসায়ীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, দিন দিন সোনারগাঁয়ে পুরাতন লিচু বাগানের সংখ্যা কমে আসছে। তারপরও লিচু চাষে ভালো মুনাফা পাওয়া যায় বিধায় অনেকেই নতুন লিচু বাগান গড়ে তুলছেন। লিচুতে কীটনাশক ব্যবহারের বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তারা বিষয়টি এড়িয়ে যান।

তাজপুর গ্রামের লিচু বাগানী মাসুম বলেন, এবার লিচুর ভালো ফলন হলেও ঝড় বৃষ্টির প্রকোপ বেশি হওয়ায়  আশংকায় দিনক্ষন কাটাতে হচ্ছে।

লিচুতে কীটনাশক প্রয়োগের ব্যাপারে ক্রেতাদের মধ্যে অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, লিচুতে ভালো রং আসার জন্য অনেক লিচু চাষী বিভিন্ন কীটনাশক ব্যবহার করে থাকেন। যা মানব দেহের জন্য ক্ষতিকর। এব্যাপারে তারা স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ডা. তানভীর আহমেদ চৌধুরী বলেন, এ কীটনাশক যুক্ত লিচু খেলে শরীরের কিডনি, লিভারের ক্ষতি ও চর্মরোগসহ বিভিন্ন রোগবালাই দেখা দিতে পারে। এব্যাপারে সকলকে সচেতন হতে হবে।

Comments

comments

About গণমানুষের আওয়াজ.কম

x

Check Also

বিকল্পধারার নামে দল গঠন হাস্যকর-মাহী বি. চৌধুরী

আওয়াজ অনলাইনঃ বিকল্পধারার যুগ্ম মহাসচিব ও দলের মুখপাত্র মাহী বি. চৌধুরী বলেছেন, যারা বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট ...

error: Content is protected !!