JavaScript must be enabled in order for you to see "WP Copy Data Protect" effect. However, it seems JavaScript is either disabled or not supported by your browser. To see full result of "WP Copy Data Protector", enable JavaScript by changing your browser options, then try again.
সংবাদ শিরোনাম:

সিসি ক্যামেরার আওতায় সিরাজগঞ্জ শহর ৩২ স্পটে ৫২ ক্যামেরা ২৪ ঘন্টা সচল

 হুমায়ুন কবির (সুমন) সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি : সিরাজগঞ্জ পৌল এলাকাকে খুব শীঘ্রই সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা হচ্ছে। জেলার মাসিক উন্নয়ন সভার সর্বশেষ বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে এবং জেলা পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিনকে আহবায়ক করে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার প্রায় ২৩টি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টকে প্রাথমিকভাবে চিহ্নিত করা হয়েছে। কোন কোন পয়েন্টে একাধিক সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হবে এসব সিসি ক্যামেরার কন্ট্রোল রুম বসবে জেলা পুলিশের কন্ট্রোল রুমে।

সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার গুরুত্বপূর্ণ মোড়, ব্যস্ততম এলাকা, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ শহরের প্রবেশ মুখে এসবসিসি ক্যামেরা ২৪ ঘন্টা চালু থাকবে। নজরে থাকবে পথচারীসহ যানবাহন। প্রাথমিকভাবে যেসব পয়েন্ট নির্ধারণ করা হয়েছে সেগুলো হচ্ছে শহরের মুজিব সড়ক, এসএস সড়ক, ফজলুল হক সড়ক, বাসষ্ট্যান্ড, কাঠেরপুল, বাহিরগোলা সড়ক, মিরপুর রেলগেট, চান্দালির মোড়, পুরাতন জেলখানা গেট, আইআই কলেজ, সার্কিট হাউস এলাকা, হার্ড পয়েন্ট, মহিলা কলেজ, সরকারি কলেজ এলাকা, বাজার স্টেশন, কোর্ট চত্ত¡র এলাকা। পৌর এলাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে সিসি ক্যামেরা বসানো হলে অপরাধ প্রতিরোধ অপরাধ নিবারণ এবং অপরাধীকে ডিটেকসনে সহায়ক হবে। অপরাধীর গতিবিধির প্রামান্য দলিল থাকবে।

কোন এলাকা দিয়ে প্রবেশ ও বহির্গমন হচ্ছে তা রেকর্ড করা থাকবে একারণে কোন অপরাধী অপরাধ করে বিচার বহির্ভূত থাকার সুযোগ থাকছে না। সমগ্র শহর থাকচ্ছে ‘‘নিরাপত্তা বলয়ে’’ ব্যাংক, বীমা, ব্যক্তিগত ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নিরাপত্তা বৃদ্ধি পাবে। ছিনতাই, চুরি রোধ হবে। সিসি ক্যামেরার আওতায় শহরকে নিয়ন্ত্রণ করা হলে নাগরিক নিরাপত্তা এমনকি মাদক ক্রয় বিক্রয় ইভটিজিং বন্ধ হবে বলে অনেকেই আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। সন্ত্রাস, দাঙ্গা, হাঙ্গামাসহ কোন কারণে নাগরিকদের জিম্মি কিংবা নাগরিকের স্বাভাবিক চলাচলে বিঘ্ন ঘটালে স্থাপিত সিসি ক্যামেরা অপরাধীকে আইনের আওতায় আনতে সহায়তা করবে।

বিশেষ করে জাতীয় সম্পদ রক্ষাসহ নাগরিকের জানমাল রক্ষায় সিসি ক্যামেরা সহায়ক হবে। পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহমেদ পিপিএম কে আহবায়ক করে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে এতে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান, পৌরসভার মেয়র, চেম্বার অব কমার্সের প্রেসিডেন্ট, গণপূর্থ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী, জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন সরকারী বিভাগের প্রধানদের কমিটিতে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে।

প্রাক্কলন তৈরীর কাজ চলছে। ২৩টি স্পটে ৫২টি সিসি ক্যামেরা স্থাপনের কাজ চলছে। এব্যাপারে পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, সকলের সহযোগিতা নিয়ে পৌর এলাকাকে সিসি ক্যামেরার আওতায় আনতে পারলে পৌর নাগরিকদের নিরাপত্তা বলয় তৈরী হবে। অপরাধ মুক্ত শহর গঠনে সিসি ক্যামেরা এই প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে অপরাধ প্রতিরোধ ও অপরাধী সনাক্ত করতে সহায়ক হবে।

Comments

comments

About গণমানুষের আওয়াজ.কম

x

Check Also

বিকল্পধারার নামে দল গঠন হাস্যকর-মাহী বি. চৌধুরী

আওয়াজ অনলাইনঃ বিকল্পধারার যুগ্ম মহাসচিব ও দলের মুখপাত্র মাহী বি. চৌধুরী বলেছেন, যারা বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট ...

error: Content is protected !!