Home » আজকের এই দিনে » ১০ অক্টোবর ইতিহাসের এই দিনে
১০ অক্টোবর ইতিহাসের এই দিনে

১০ অক্টোবর ইতিহাসের এই দিনে

আওয়াজ অনলাইন : আজ ১০ অক্টোবর। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনাবলি:
১৭৫৬ – সালের এই দিনে লর্ড রবার্ট কাইভ মাদ্রাজ থেকে ৫টি যুদ্ধজাহাজে ৯০০ সৈন্য নিয়ে কলকাতা দখলের জন্য যাত্রা করে।
১৯০২ – সালের এই দিনে হল্যান্ডের হেগ শহরে আন্তর্জাতিক আদালতের প্রথম বৈঠক বা এজলাস অনুষ্ঠিত হয়।
১৯১১ – সালের এই দিনে চীনে দু হাজার বছরের রাজতন্ত্রের অবসান ঘটে।
১৯১৩ – সালের এই দিনে পানামা খালের গাম্বোয়া বাধ ভেঙে আটলান্টিক ও প্রশান্ত মহাসাগর একাকার হয়ে যায়।
১৯১৭ – সালের এই দিনে সালের এই দিনে জার্মানির বিরুদ্ধে ব্রাজিল যুদ্ধ ঘোষণা করে।
১৯১৯ – সালের এই দিনে পানামা খাল খনন শেষ হয় এবং একে উন্মুক্ত ঘোষণা করা হয়।
১৯৩২ – সালের এই দিনে সোভিয়েত ইউনিয়নের নেভা নদীর উপর লেনিন জলবিদ্যুৎ প্রকল্প চালু হয়।
১৯৪২ – সালের এই দিনে কবি কাজী নজরুল ইসলাম মস্তিক ব্যাধিতে আক্রান্ত (মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত তিনি আর সুস্থ হননি) হন।
১৯৪৩ – চিয়াং কাই শেক চীনের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন।
১৯৫৬ – সালের এই দিনে মাদ্রাজ থেকে লর্ড ক্রাইভের কলকাতা দখল অভিযানের যাত্রা শুরু হয়।
১৯৫৯ – সালের এই দিনে আজেন্টিনায় গৃহযুদ্ধ শুরু হয়।
১৯৬৪ – সালের এই দিনে এশিয়ার প্রথম টোকিও অলিম্পিক গেমস অনুষ্ঠিত হয়।
১৯৬৭ – সালের এই দিনে প্রায় ১০০ দেশের মধ্যে মহাশূন্য চুক্তি স্বাক্ষর হয়।
১৯৭০ – সালের এই দিনে দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরে অবস্থিত দ্বীপ দেশ ফিজি দ্বীপপুঞ্জ ব্রিটেনের কাছ থেকে স্বাধীনতা লাভ করে।
১৯৭১ সালেই এই দিনে দিনাজপুরের চড়ারহাট গ্রামে হানাদার বাহিনী মেতে ওঠে হত্যাযজ্ঞে। প্রায় শতাধিক মানুষকে গভীর রাতে ঘুম থেকে তুলে একত্রিত করে নির্মমভাবে হত্যা করে তারা। তাদের মধ্য থেকে গুলিবিদ্ধ ১১ জন প্রাণে বেঁচে গেলেও শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয় সেখানে। পাশের আন্দোল গ্রামটিও রেহাই পায়নি হানাদারদের হাত থেকে।
১৯৭২ – সালের এই দিনে বঙ্গবন্ধুকে বিশ্বশান্তি পরিষদের সর্বোচ্চ সম্মান ‘জুলিও কুরি’ পদক প্রদান করা হয়।
১৯৮৬ – সালের এই দিনে সালভাদের ভুমিকম্পে দুই সহস্রাধিক লোকের প্রাণহানি ঘটে।
১৯৯২ – সালের এই দিনে থেকে ‘ বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস ’ পালন করা হচ্ছে।
১৯৯৭ – সালের এই দিনে ফ্রান্সের ৪০ জাতি শীর্ষ সম্মেলন শুরু হয়।
সম্পাদনা : এম হিরন প্রধান।

লাইক ও শেয়ার করুন:
BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes
Scroll Up
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
error: Content is protected !!