Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
Home » শিক্ষা-শিল্প-সাহিত্য » শাহজাহান সিরাজ সবুজ- এর একগুচ্ছ কবিতা
শাহজাহান সিরাজ সবুজ- এর একগুচ্ছ কবিতা

শাহজাহান সিরাজ সবুজ- এর একগুচ্ছ কবিতা

দেশকে ভালোবাসি 

এসো বন্ধু,
হিংসা-বিদ্বেষ পরিহার করি,
মানুষে মানুষে মৈত্রী গড়ে তুলি।
লোভ-লালসা, হিংস্রতা থেকে
মুখ ঘুরিয়ে ফেলি।
দেশপ্রেম, কবিতা, গান, উৎকর্ষ
আর সৃষ্টি সুখে মেতে উঠি।
এসো বন্ধু,
দুর্নীতি, সন্ত্রাস, মাদককে না বলি,
দেশটাকে গড়ে তুলি।
বাংলার মাটি, বাতাস, আকাশকে
সুন্দর, নির্মল করি।
এসো বন্ধু,
যারা রাজনৈতিক প্রতিহিংসা ছড়ায়
কিংবা মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করে,
তাদেরকে প্রতিহত করি একসাথে,
তা নাহলে দেশ অন্ধকারের অতলে!
এসো বন্ধু,
পুস্তকে নয়, সংবিধানের পাতায় নয়,
বাস্তবে ন্যায় বিচার, সুশাসন চাই।
অলিক স্বপ্নে নয়, বাস্তবে মত প্রকাশের
অধিকার চাই।
কথায় নয়, বাস্তবে আইন মেনে চলি,
নিজেদের সভ্য জাতিতে পরিনত করি।
ঘরে বাইরে চিৎকার করে বলি,
ভালোবাসি, ভালোবাসি, ভালোবাসি,
দেশকে ভালোবাসি, মানুষকে ভালোবাসি।

******************************

নির্বিকার
– শাহজাহান সিরাজ সবুজ

ঘূর্ণিঝড়ের ঘূর্ণিপাকে পড়েছি বহুবার,
চোখে পড়েছিল ধুলোবালি,
জমেছিল চোখে কান্নার সমাহার,
খড়কুটোর মতো ভেসে যায়নি স্রোতে!
চিরকাল চলেছি স্রোতের বিপরীতে,
জলের মধ্যে ভেসে চলেছি অবিরাম,
জলের ছোঁয়ায় নিভে যায়নি!
আগুন-কান্নায় ঘষে ঘষে আজো
জ্বালিয়ে রেখেছি সন্ধ্যা বাতি!
সন্ধ্যা শেষে নামে কালো রাত,
জীবনে নেমে আসে দুর্বার তুফান,
তবুও আমি অবিচল,
যা হবার হবে, যা ঘটার ঘটবে,
আমি থাকবো নির্বিকার! 

অপূর্ণতা
– শাহজাহান সিরাজ সবুজ

গতিময় জীবন থেমে যাবে মৃত্যুতে,
এ’কথা সর্বলোকে জানে।
তবুও মৃত্যু থেকে বাঁচিবার তরে,
ছুটে চলেছি অবিরাম।
আমৃত্যু দুঃখের তপস্যা এ জীবন,
জীবনের দায় শোধিতে হবে,
মৃত্যুতে সকল দায় শোধ হবে কী?
হায়রে জীবন! সর্বনাশী জীবন!
জীবনের মার খাচ্ছে জীবন,
মুখ ফিরিয়ে নেওয়ার উপায় কী?
আছে মৃত্যু, বিরহদহন লাগে হৃদয়ে,
তবুও খুঁজে ফিরি পূর্ণতা।
পূর্ণতা খোঁজার আমৃত্যু প্রয়াস,
তবুও আসে না জীবনে পূর্ণতা।
জীবনতরী খুঁজে ফেরে সঞ্জীবনী,
নিষ্ফল প্রাপ্তিতে হই ম্রিয়মাণ।
অপূর্ণ প্রাপ্তিতে পূর্ণ এ জীবন
অহর্নিশি ব্যর্থ চেষ্টায় ছিলাম ব্রত।
পূর্ণতার আস্বাদ কভূ পাইনি,
এঁকেছে চলেছি ব্যর্থতার চিহ্ন।
বিদায় বেলায় চাইনা পূর্ণতা,
অপূর্ণতাই হোক জীবনের পূর্ণতা। 

**************************

ওগো মোর প্রিয়তমা
– শাহজাহান সিরাজ সবুজ

মোর হৃদয় জমিন পারবেনা ছুঁতে
তোমার অহংকারী মন।
এ জমিনে ভালোবাসার ফসল বুনি
তোমার জন্য আমি সারাক্ষণ।
তাহা তোমার বুঝার সাধ্যি নেই যে
ওগো মোর প্রিয়তমা।

তুমি অহংকারের দেবী জানা ছিলনা,
অহংকারের বিষবাষ্পে শুকিয়ে গেছে,
মোর হৃদয়ের জমিনখানা।
মোর বেদনাটুকু পারবেনা ছুঁতে তুমি,
হাসির পরশ দিয়ে,
এ বেদনা শুধু আমারই থাক,
ওগো মোর প্রিয়তমা।

তব নির্মমতায় মোর হৃদয়ে রক্তঝরে,
আমার ঝরে যাওয়া রক্তে পারবে কি
নিজেকে রাঙাতে?
হৃদয়ের রক্তক্ষরণ পারবেনা ছুঁতে তুমি,
এ রক্তক্ষরণ শুধু আমার থাক,
ওগো মোর প্রিয়তমা।

তব আঘাতে মোর হৃদয়ে জ্বলছে অনল,
যে অনলে পুড়ে ছাই হচ্ছি দিবানিশি,
মোর হৃদয়ের অনল পারবেনা ছুঁতে তুমি,
এ অনল কেবল আমারই থাক,
ওগো মোর প্রিয়তমা।

মোর ঠোঁটের কোণ পারবেনা ছুঁতে তুমি,
জোছনার এক টুকরো হাসি মেখে,
এ আবেগ কেবল আমারই থাক,
ওগো মোর প্রিয়তমা।

**************************

অপেক্ষার প্রহর
– শাহজাহান সিরাজ সবুজ

আমার অস্তিত্বের শুরু হয়েছে
জন্মানোর অপেক্ষায়!
আর জন্মলগ্ন থেকে মৃত্যুর অপেক্ষা!
নেশাতুর চোখে শুধুই অপেক্ষা!

যখন আকাশ ভেঙ্গে বৃষ্টি নামে
ভিজে যায় সুউচ্চ দালান,
রাজপথে যখন চৈত্রের রোদ্দুর,
তখনও ইচ্ছে করে,
অপেক্ষার অধ্যায় গুলো
রাঙাই আমি।

কুয়াশা নেমেছে জীবনে,
জোছনার আলো ছুঁয়ে যায়না,
আমার চোখের মনি!
তবুও তোমার জন্য অপেক্ষা,
অপেক্ষার প্রহর শেষ হয়না।

আমার অপেক্ষা প্রবণ মন,
আজো দাঁড়িয়ে আছে ঠাঁয়,
কিন্তু তুমি আসনি।
পুরো আকাশ আলোকিত,
প্লাবিত নদী রূপালী আলোয়,
আমার মধ্যে ভর করেছে,
অমাবস্যার নির্লিপ্ত অপেক্ষা।

তোমাতে মুগ্ধ হয়ে পথে-প্রান্তরে ঘুরছি,
সবকিছুই সেই সার্বজনীন মৃত্যুর
বর্ণিল অপেক্ষা ছাড়া আর কী?
কবিতাকে সাক্ষী রেখে বলছি,
তোমাকে পেলে পূর্ণ হবে
অপেক্ষার প্রহর।

****************************

সংসার
– শাহজাহান সিরাজ সবুজ >
সংসার এক বেদনার জলাভূমি,
জলাভূমির কাদাতে ডুবেছি আমি,
সেকি কেবল কাদামাখা জীবন!
নাকি আনন্দপূর্ণ স্বস্তিপূর্ণ জীবন?
কেউ সংসারী, কেউ’বা সংসার বিরাগী,
কেউ কুঁড়েঘরে সংসার সাজায়,
কেউ’বা অট্টালিকায়!
মানুষ সংসার ভাঙে, নতুন সংসার গড়ে,
সেতো মনে মনে সব মানুষই চায়!
কেউ পারে, কেউ পারে না।
আবার কেউ পারতেও চায় না।
সংসার, সেতো মহা মায়া,
এই মায়া ছেড়ে পলায়নের উপায় কী?
পলায়নের উপায় তো নেই!
পলায়ন শুধু ভীরুতা নয়, স্বার্থপরতাও।
জীবন ছাড়বে! সংসার ছাড়বে না!
কিন্তু মন? মন বন্দি থাকে না!
মন আইল ডিঙায়ে ঘাস খায়!
চিরকাল সংসার ছেড়ে পালাতে চায়! 

*************************

পলায়ন
– শাহজাহান সিরাজ সবুজ
ভুল প্রলোভনে পথের সাথীদের ছেড়েছি?
নিজের মনের মধ্যে প্রশ্ন জাগে।
বেঁচে থাকার জন্য কি পালিয়ে যেতে হবে।
যাচ্ছি না তো?
কী জানি, হয়তো পলায়ন বলে কিছু নেই !
সবই বেঁচে থাকা।
জীবন থেকে পালিয়ে কোথায় যাবো?
স্বজনদের থেকে পালাতে চাই।
কিন্তু পালাতে পেরেছি কী?
স্বজনদের ভাবনা গ্রস্ত করে, নিমজ্জিত করে,
সারাক্ষণ তাদের কথা মনে পড়ে!
জীবন থেকে পালিয়ে যাওয়া যায় কী ?
জীবন এক নাছোড় জিনিস।
তাকে ছাড়া যায় না।
নিষ্ঠুর বাস্তবতা ভুলে থাকতে চাই।
তাই হয়তো আমরা কেউ মাতাল হই,
মাতাল আমাদের হতেই হবে,
গানে, কবিতায় বা উৎকর্ষে’_ যা খুশি।
মাতাল লোকও জীবনে থাকতে পারে।
কাজেই পালানো আসলে যায়না।
সংসার থেকে পালিয়ে যায় লোকে।
যেদিন পূর্ণিমা ডাকে, চাঁদ ডাকে,
বধূর কথা মনে পড়ে!
তখন কল্পনার জগতে যতোই আশ্রয় নেই।
জীবন থেকে পালাতে পেরেছি কী?
আদতে জীবন থেকে পলায়ন করা যায়না!

লাইক ও শেয়ার করুন:
BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes
Scroll Up
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
FACEBOOK
FACEBOOK
TWITTER
error: Content is protected !!