বাংলাদেশ শ্রমিক সংহতি ফেডারেশন এর মানব বন্ধন

নাহিদুল হাসান নয়নঃ আজ ২৫, জুলাই, ২০২০ইং শনিবার, সকাল ১০.৩০ ঘটিকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সন্মুখে, বাংলাদেশ শ্রমিক সংহতি ফেডারেশন, ও বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতি ফেডারেশন এর উদ্দোগে “দাবী আদায় কর্মসূচী” র আওতায় এক মানব বন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়।

এই কর্মসূচীতে বাংলাদেশের শ্রমজীবী মানুষের প্রানের দাবী ১০ দফার ভিত্তিতে শ্রমিক ও শ্রমজীবীদের আন্দোলন গড়ে তোলার এবং সিলেট বিভাগীয় ট্যাংকলরী শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জনাব ইকবাল হোসেন রিপনের হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবীতে কর্মসূচী উপস্থাপন করা হয়।

এই সভায় বাংলাদেশ শ্রমিক সংহতি ফেডারেশন ও বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতি ফেডারেশন,এর নেতৃবৃন্দ এই মানব বন্ধন কর্মসূচীতে কর্মসূচীর ভিত্তিতে ভবিষ্যত করনীয় সম্পর্কে বক্তব্য রাখেন।

মানব বন্ধন কর্মসূচীতে ১০ দফা দাবীসমূহ
(১) করোনা মহামারিকালীন সময়ে কোন শ্রমিককে ছাঁটাই বা কর্মচ্যুৎ করা যাবেনা, (২) সরকারীভাবে শ্রম আইনের ৩২৪ ধারা প্রয়োগ করে ছাঁটাই, বরখাস্ত ও কর্মচ্যুৎসহ সকল নিবর্তনমূলক আইন স্থগিত করতে হবে, (৩) ঈদুল ফিতরের বোনাসের অর্ধেক পাওনা ও অন্যান্য সকল বকেয়া মজুরী অবিলম্বে পরিশোধ করতে হবে, (৪) মালিকের ব্যবস্থাপনায় সকল শ্রমিকের বাসস্থান নিশ্চিত করতে হবে, (৫) সকল শ্রমিকের স্বাস্থ্য সুরক্ষা, কর্মক্ষেত্রে নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ, করোনা আক্রান্ত প্রত্যেক শ্রমিককে ৫ লক্ষ ও করোনায় মৃত শ্রমিকের প্রত্যেককে ৩০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে, (৬) কর্মহীন শ্রমিকদের নগদ আর্থিক সহায়তা ও সকল শ্রমিকের জন্য স্বল্প মূল্যে রেশনের ব্যবস্থা করতে হবে, (৭) অবিলম্বে ঈদুল আযহার পূর্ণ বোনাস পরিশোধ করতে হবে, (৮) শ্রমিক ও শ্রমিক নেতাদের নামে দায়েরকৃত সকল মামলা প্রত্যাহার করতে হবে, (৯) শ্রমিক শ্রেণীর ন্যায়সঙ্গত আন্দোলনে সরকারী পুলিশ ও সরকারী দপ্তরের সহযোগীতা করতে হবে ও (১০) পাচাঁরকৃত সকল অর্থ-সম্পদ দেশে ফেরত আনতে হবে এবং পাঁচারকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির বিধান করতে হবে।