Home » সংবাদ শিরোনাম » জামালপুর সদরের বেলটিয়া ভাই ভাই ‘স’-মিল এন্ড ফার্ণিচার মার্ট আগুনে পুড়ে ভস্মীভুত ॥ কোটি টাকার ক্ষয় ক্ষতি
জামালপুর সদরের বেলটিয়া ভাই ভাই ‘স’-মিল এন্ড ফার্ণিচার মার্ট আগুনে পুড়ে ভস্মীভুত ॥ কোটি টাকার ক্ষয় ক্ষতি

জামালপুর সদরের বেলটিয়া ভাই ভাই ‘স’-মিল এন্ড ফার্ণিচার মার্ট আগুনে পুড়ে ভস্মীভুত ॥ কোটি টাকার ক্ষয় ক্ষতি

রবিউল হাসান লায়ন জামালপুরঃ  জামালপুর শহরের বেলটিয়া তিতাস গ্যাস অফিস সংলগ্ন ভাই ভাই ‘স’-মিল এন্ড ফার্ণিচার মার্ট আগুনে পুড়ে ভস্মীভুত হয়েছে।
রবিবার দিবাগত আনুমানিক রাত ৩ টার সময় ঘরের পাশে কাঠের স্তুপ থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়ে ‘স’-মিল, ফার্ণিচার মার্ট, বসতবাড়ী, বাড়ীর আসবাবপত্র, নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকারসহ আগুনে পুড়ে প্রায় ১ কোটি টাকার ক্ষয় ক্ষতি হয় বলে প্রতিষ্ঠান মালিক মোঃ সুরুজ মিয়া জানায়,
আগুনের খবর পেয়ে জামালপুর ফায়ারসার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের একটি ইউনিট ১ ঘন্টা ৩০ মিনিট চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে স্বক্ষম বলে সূত্র জানায়।
 ভাই ভাই ‘স’-মিল এন্ড ফার্ণিচার মার্ট’র প্রোপাইটর মোঃ সুরুজ মিয়া জানান, প্রতিদিনের ন্যায় আমরা সকল কাজ সেরে রাতে ঘুমিয়ে পরি।
 হঠাৎ স্থানীয় এলাকাবাসির ছুরা টিনের চালে ডিলের শব্দে আমাদের ঘুম ভেঙ্গে যায়। তখন গভীর রাত। এসময় দেখতে পাই ঘরের চারদিকেই শুধু আগুন আর আগুন।
পরে স্থানীয়রা এসে ঘরের জানালা ও দরজা ভেঙ্গে আমার পরিবারের ৫ জন সদস্যকেই আগুন থেকে উদ্ধার করে। ইতিমধ্যে আমার ফার্ণিচার মার্ট বাড়ী ঘরের সকল আসবাবপত্রসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সকল জিনিস, নগদ অর্থ, স্বর্ণালংকারসহ সকল কিছু আগুনে পুড়ে ছায় হয়ে যায়।
তিনি আরো বলেন, আগুন নিভাতে স্থানীয়দের চেষ্টা ও পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে দেড় ঘন্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। এসময় আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ৩৯ টি কাঠের দরজা, দুইটি ব্যটারী চালিত ভ্যান গাড়ি, ‘স’ মিলসহ ফার্ণিচার মার্টে ব্যবহিত ৬ টি ইলেকট্রিক মটর, ঘরের ২ টি এলইডি টিভি ও টিভির ট্রলি, ৪ টি খাট, ২টি ওয়্যারড্রব, ২টি ক্যাবিনেট, ২টি ড্রেসিংটেবিল, ১ টি ফ্রিজ, ২টি আলমিরা, ১টি আলনা, ২টি মিরসেপ, ২ সেট কাঠের সোফা, ডাইনিং টেবিল ১ সেট, ১টি স্যালাই মেশিন, ৭ ভরি স্বর্ণের গহনা,  ব্যবসায়ে ব্যবহৃত নগদ ১২ লাখ টাকা, জমির সকল কাজপত্র,
পালচার হোন্ডার কাগজ পত্র ও লাইসেন্স, ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের সকল কাগজ পত্র, ২টি প্রিপেইড মিটার আগুনে পুড়ে ভস্মীভুত হয়। এতে করে আমার প্রায় ১ কোটি টাকার সম্পদ আগুনে পুড়ে যায়। বর্তমানে আমার অবস্থা খুবই সূচনিয়।
স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, সুরুজ মিয়ার বাড়িঘর, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, নগদ অর্থ, স্বর্ণালংকারসহ সকল কিছুই আগুনে পুড়ে যায়। গভীর রাতে তার বাড়িতে আগুন দেখতে পেয়ে আমরা তাকে প্রথমে ডাকা ডাকি করি। তার কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে ঘরের টিনের চালে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকি। এক পর্যায়ে কেউ ঘর থেকে বেড় না হওয়ায় আমরা এলাকাবাসী ঘরের জানালা, দরজা ভেঙ্গে তাদের উদ্ধার করি। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে এবং স্থানীয় জনগনের সহযোগীতায় দেড় ঘন্টার চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে স্বক্ষ হয়।    ভোক্তভুগী মোঃ সুরুজ মিয়া স্থানীয় প্রশাসনসহ সরকারের যথাযথ কর্তৃপক্ষের  কাছে আগুনে পুড়ে ক্ষয় ক্ষতির সুষ্ঠ্য তদন্ত পূর্ব সুবিবেচনা করে আর্থিক সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন।
BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes
Scroll Up
error: Content is protected !!